দুর্ঘটনা ও বিপর্যয় মোকাবিলা কর্মীদের প্রশিক্ষণ বহরমপুরে

নিজস্ব সংবাদদাতা, বহরমপুরঃ ভূমিকম্প হোক কিনবা অগ্নিকান্ড। বন্যা থেকে অন্য যেকোনো বিপর্যয় বা দুর্ঘটনা কোনদিনই কাওকে বলে আসেনা। প্রাকৃতিক হোক কিংবা মনুষ্যসৃষ্ট দুর্ঘটনার সময়ে সবার আগে এগিয়ে আসেন কমলা উর্দিধারী বিপর্যয় মোকাবিলা টিম।

রাজমিস্ত্রির কাজে দুর্ঘটনার কবলে পরে প্রাণ হারান অনেক শ্রমিক। কীভাবে সেই দুর্ঘটনা মোকাবিলা করা যাবে। কিংবা হঠাৎ কেউ নদীতে ডুবে গেলে ডুবুরি কীভাবে কাজ শুরু করবে? কীভাবে স্পিড বোটে করে সেই কাজ আরও ত্বরান্বিত করা যাবে? জেলার বেশ কিছু জায়গা বন্যা প্রবণ। বন্যা হলে কী করবেন? কীভাবে বন্যায় আক্রান্তদের ফিরিয়ে নিয়ে আসা যাবে সুরক্ষিত জায়গায়? অতিবৃষ্টি বা বর্জ্যপাতেই বা কী করনীয়? সাপের কামড়ে কী করনীয়। এই সব বিষয়ে সচেতনতা হাতে নাতে সেই কাজই দেখালেন প্রফেসনালরা। বৃহস্পতিবার জেলার বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের কর্মীদের প্রশিক্ষণ কর্মসূচি হল বহরমপুরের ব্যারাক স্কোয়ারের মাঠে।

জেলা দুর্ঘটনা ও বিপর্যয় মোকাবিলা আধিকারিক কমল চক্রবর্তী জানান, প্রশিক্ষণের জন্য কলকাতা থেকে এসেছিলেন এনডিআরএফের অফিসাররা। তাঁদের কাছ থেকে জেলার কর্মীরা অনেক কিছু শিখল। এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের কর্মীদের পাশাপাশি অংশগ্রহণ করেছিলেন এনসিসি’র ছাত্রছাত্রীরা। কর্মশালায় এসে হাতে নাতে প্রশিক্ষণ নিলেন তাঁরাও।