মুচমুচে মাছের কচুরির গন্ধে মম YMA মাঠ

মধ্যবঙ্গ ওয়েব ডেস্কঃ গরমাগরম খাস্তা কচুরি, তাও আবার মাছের। হ্যাঁ এই ভাবনাকে সম্ভব করে প্লেটে সাজিয়েছে অনিতা ফুড লাইব্রেরি। মুর্শিদাবাদ ফুড ফেস্টিভালের দ্বিতীয় দিনে লোক টানছে অনিতা হালদারের ৩৯ নম্বর স্টল। খাবারের অভিনবত্ব তো বটেই, ফুড ফেস্টিভালের মাঠে এই গন্ধই জানান দিচ্ছে নতুন কিছু হতে চলেছে।

সকাল থেকে স্টলের প্রায় বিশ রকমের আইটেমের প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায় সেফ অনিতার। তিনি জানান, এবছরের স্পেশাল মাছের কচুরি। ভেটকি মাছ রান্না করে, বিভিন্ন মশলার মিশ্রণে বানানো হয় পুর। সেই পুর ময়দায় ভরে, বেলে গরম তেলে। তারপরে কড়াই থেকে ফুলকো কচুরি আপনার প্লেটে। সাথে নতুন ছোট আলুর দম। আর এই খেতেই ভিড় উপচে পড়ছে অনিতা হালদারের স্টলে। সাথে চিকেন মুনিয়া, চিকেন শাহি রোল, গন্ধরাজ স্প্রিং রোল, চিকেল শেফালি, পনির পাসিন্দা সহ আরও নানা জিভে জল আনা খাবার।

শহরের বাসিন্দা মৃদুল সাহা সস্ত্রীক এসেছেন এই মুর্শিদাবাদ ফুড ফেস্টিভাল। তিনি জানান, “কচুরি নানান রকম খেয়েছি। কিন্তু এই মাছের মুচমুচে কচুরি সত্যিই অন্যরকম। দুটো খেলেই পেট ভরে যাবে। আর তার সাথে আলুর দমটাও অসাধারন। আবার খাব।” অনিতা ফুড লাইবেরির পাশাপাশি পসরা সাজিয়েছে বাকি স্টলদাতারাও। কোথাও চিকেন কাবাব তো আবার কোথাও পাশকুড়ার চপ আবার কোথাও বাঁশের মধ্যে ভরে রান্না হচ্ছে ‘ব্যাম্বো বিরিয়ানি’। সব মিলিয়ে মুর্শিদাবাদ ফুড ফেস্টিভালের ১০০ অধিক স্টলে, বিভিন্ন খাবারের গন্ধে যেন মেতে উঠেছে শহর বহরমপুর।