সুতি শ্যুট আউটে মৃতের স্ত্রীকেই নেওয়া হল পাঁচদিনের পুলিশি হেফাজতে

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ ৩রা অক্টোবর সুতিতে শ্যুট আউট হয় প্রবীর দাস নামের এক ব্যাক্তিকে। সেই ঘটনায় বুধবার গ্রেফতার করা হয়েছিল মোট তিনজনকে। মঙ্গলবার রাতে শ্যুট আউটের ঘটনা ঘটে সুতিতে। সুতি থানার জগতাই-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের হাপানিয়া এলাকায় গুলি করে খুন করা হয় প্রবীর দাস নামের এক ব্যক্তিকে। গ্রাম লাগোয়া পোলট্রি ফার্ম থেকে গুলিবিদ্ধ প্রবীর দাস কে প্রথমে মহিশাইল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান ছিল বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই এই শ্যুট আউট। এবং ঘটনার চব্বিশ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই পুলিশ তিন জনকে গ্রেফতার করেছিল। উদ্ধার হয় খুনে ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র ও মোটর বাইক। এবং জেরা করতে করতে বেড়িয়ে আসে আসল কালপ্রিট।

ঘটনার পরের দিনের সকাল থেকেই মৃতের স্ত্রী রাখি দাসকে আটক করে পুলিশ, পাশাপাশি জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়। এবং সেদিন রাতেই গ্রেপ্তার করা হয় স্ত্রী রাখি দাসকে। পুলিশ সূত্রে খবর, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই এই শ্যুট আউটের প্ল্যানিং করা হয়। বৃহস্পতিবার ধৃতকে জঙ্গিপুর আদালতে পাঠায় পুলিশ। সুতি শ্যুট আউটের ঘটনায় অভিযুক্ত রেখা দাসকে পাঁচদিনের রিমান্ডে নিল সুতি থানার পুলিশ। কিন্তু সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়ার পর বারবার অস্বীকার করেন এই খুনের। এমনকি অভিযোগ তুলে দিচ্ছেন অন্য কারোর ওপর। কে বা কেন খুন করল তাঁর স্বামীকে সেই নিয়ে তিনি সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।