SFI, DYFI-এর ‘থানা চলো’ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র লালগোলা!

Madhyabanga News : আজ শনিবার SFI ও DYFI এর ‘থানা চলো’ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল লালগোলা। পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে তীব্র প্রতিবাদে সরব ডিওয়াইএফআই ও এসএফআই -এর নেতা ও কর্মীরা।
চাকরিপ্রার্থী আব্দুর রহমানের ইনসাফের দাবিতে লালগোলায় ‘থানা চলো’ অভিযানের ডাক দেয় ডি.ওয়াই.এফ.আই ও এস.এফ.আই। মিছিল করে থানার দিকে এগোলে পুলিশের ব্যারিকেডের সামনে পড়েন বিক্ষোভকারীরা। এই অবস্থায় ব্যারিকেড ভেঙে তারা থানার সামনে যেতে চাইলে পুলিশি বাধায় তাঁরা মিছিল নিয়ে থানার সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন।
এই ঘটনা ঘিরে বাঁধে ধুন্ধুমার কান্ড। এই মিছিলে আব্দুর রহমানের বাড়ি সরপাখিয়া থেকেও বহু মানুষ ‘থানা চলো’ অভিযানে অংশ নেন। চাকরিপ্রার্থী আব্দুর রহমানের মৃত্যুর জন্য দায়ী অপরাধীদের গ্রেপ্তার ও রাজ্যজুরে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির চক্র ভাঙা, সুষ্ঠভাবে পঞ্চায়েত নির্বাচন করতে পুলিশের নিরপেক্ষ ভূমিকা পালনের দাবি নিয়ে লালগোলা থানা অভিযানের ডাক দেয় DYFI ও SFI।
SFI রাজ্য সহসভাপতি দেবাঞ্জন দে মিছিল থেকে বলেন, “আব্দুর রহমানের মৃত্যু আত্মহত্যা নয়। এই ঘটনা প্রাতিষ্ঠানিক হত্যার একটি নিদর্শন। সুইসাইড নোটে লেখা আছে কারা দায়ী। পুলিশ অভিযুক্তদের ব্যবস্থা না নিয়ে নিরব বসে রইল। এই সাহস একটা দল তখনই পায় যখন তারা পুরোপুরি ভাবে দুর্নীতিগ্রস্ত হয়।”
গত ১৫ই অক্টোবর লালগোলায় আব্দুর রহমানের বাড়িতে এসে লালগোলা থানা অভিযানের ডাক দেন DYFI এর রাজ্য সম্পাদিকা মীনাক্ষী মুখ্যার্জী। নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী, আজ শনিবার দুপুরে মিছিল করে লালগোলা থানা ঘেরাও করে ডি.ওয়াই.এফআই ও এস.এফ.আই নেতা কর্মীরা। মিছিলে পা মেলান ডি.ওয়াই.এফ.আই এর রাজ্য সভাপতি ধ্রুবজ্যোতি সাহা, জেলা সম্পাদক সন্দীপন দাস সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা।
DYFI রাজ্য সভাপতি ধ্রুবজ্যোতি সাহা বলেন, “এতদিন যারা দুর্নীতি করে ধরা পরেছে তারা চুনোপুঁটি, রাজ্যের বড় মাছ ধরা এখনও বাকি। চাকরি প্রার্থী আব্দুর রহমানের পরিবারের ওপর হুমকি দিচ্ছে তৃণমূলের প্রশাসন। যাই হয়ে যাক না কেন আমরা আব্দুর রহমানের পরিবারের পাশে আছি।”