ভোটের মুখে ইসলামপুরে উদ্ধার দেশি বন্দুক , ডোমকলে বোমা। ভোট হবে শান্তিতে ?

মামুন আব্দুল কায়েম, ডোমকলঃ  ভোটের মুখে ফের অস্ত্র উদ্ধার মুর্শিদাবাদে।  গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ইসলামপুর থানার পুলিশ দাড়াকাড়ি ঘনপাড়া গ্রামের এক বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি ৪৩ ইঞ্চি লোহার তৈরি দেশি বন্দুক  ও চার রাউন্ড কার্তুজ সহ দুই যুবক কে গ্রেপ্তার করে। উদ্ধার হয়েছে আগ্নেয়াস্ত্র ও চার রাউন্ড কার্তুজ ।  রবিবার রাতে মুর্শিদাবাদ পুলিশ জেলার ইসলামপুর থানা এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ । ধৃতদের নাম জিয়ারুল ইসলাম জিয়া, ও খোসবোর আলি। ধৃতদের সোমবার আদালতে তোলা হয় । ঘটনার আরো কে বা কারা জড়িত সে বিষয়ে জানতে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ভোটের কারণেই অস্ত্র মজুত করা হচ্ছিল কিনা উঠেছে সেই প্রশ্নও। সব দিক খতিয়ে দেখতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

অন্যদিকে ভোট আসতেই অশান্তির আঁচ ডোমকলে।  রাতের অন্ধকারে বোমা ডোমকলে বাঁধা হচ্ছিল বোমা। সাত সকালেও ডোমকলের বাগডাঙ্গা মুরারীপুর এলাকায় স্কুল লাগোয়া  বাগানে পড়ে থাকতে দেখা গেল বোমা, বোমার মশলা, বোমা তৈরীর সরঞ্জাম। স্থানীয়  তৃণমূল কর্মীদের দাবি, রাতেই তারা দেখেন বোমা বাঁধা হচ্ছে একটি বাঁশ বাগানে।  বোমা বাঁধা হচ্ছিল দেখে খবর দেন পুলিশে।   । তৃণমূল কর্মীদের আরও দাবি,   দুষ্কৃতীরা চম্পট  দেয় তৃণমূল কর্মীদের দেখেই । পুলিশকে খবর দেওয়ায় মুরারীপুরে আসে ডোমকল থানার পুলিশ।  ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে বোমা,  বোমা তৈরীর প্রচুর মশলা  ও বিভিন্ন  সামগ্রী।  ডোমকলের বাগডাঙ্গা মুরারীপুর এলাকায় ছড়িয়েছে উত্তেজনা । এলাকাটি ঘিরে রেখেছে ডোমকল থানার পুলিশ ।  কে বা কারা এই বোমা বাঁধছিল তদন্ত শুরু করেছে ডোমকল থানার পুলিশ। ঘটনা ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। মধুরকুল অঞ্চল তৃণমূল সভাপতি বাবু মন্ডলের অভিযোগ,  , রাতে প্রচারে বেড়িয়েছিলেন তৃণমূল কর্মীরা। সেই সময় স্কুলের সামনে এক ব্যক্তিকে বসে থাকতে দেখা যায়। সেই ব্যক্তি নাকি প্রশ্ন শুনেই চম্পট দেয়। তৃণমূল কর্মীদের অভিযোগ, বাগানের মধ্যে বাঁধা হচ্ছিল বোমা। খবর দেওয়া হয় ডোমকল থানায়। ঘটনায় কংগ্রেসের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে তৃণমূল। যদিও স্থানীয় কংগ্রেস কর্মীদের দাবি, রাতে রাস্তায় ঘুরছিল তৃণমূলের নেতারা। অশান্তির আশঙ্কায় বাইরে যান নি তারা। তৃণমূলের বিরুদ্ধেই চক্রান্তের অভিযোগ করছেন কংগ্রেস কর্মীরা।