প্রতিবন্ধকতা জয় করেই ৮৯ জন রক্ত দিলেন  । উঠল দাবির কথাও

মধ্যবঙ্গ  নিউজ ডেস্কঃ কেউ বলে পিছিয়ে থাকা । কেউ  বলে সাহায্যপ্রার্থী । কিন্তু  সব ধারণা  ভেঙে উৎসবের মেজাজ বহরমপুরে রক্তদান শিবিরে রক্ত দিলেন প্রতিবন্ধীরা। বললেন, আমরাও পৃথিবীর সন্তান। এদিন রক্ত দিতে এসেছেন হরিহরপাড়ার আকলুমা খতুন। দৃষ্টিহীনা আকলুমা বলেন, “ আমর আসলে সমাজেরই চোখ ফোটাতে চাই। আমারা চাই না কেউ আমাদের সাহায্যপ্রার্থী ভাবুক। শুধু আমাদের প্রাপ্য অধিকার আমাদের দেওয়া হোক”। পেশায় খেলনা বিক্রেতা মহম্মদ সেকেন্দার আলি রক্তদানের পর বসেছিলেন হুইল চেয়ারে। সেই চেয়ার ঠেলেই বিভিন্ন মেলায় দোকান দেন সেকেন্দার আলি। বললেন, “আমার রক্তে যদি কারও প্রাণ বাঁচে বাঁচুক না”। জানালেন আগেও রক্তদান করেছেন তিনি।

বুধবার বহরমপুরে মুর্শিদাবাদ ডিস্ট্রিক্ট জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশনের গলিতে রক্তদান শিবিরে রক্তদান করেন ৮৯ জন শারীরিক প্রতিবন্ধী। তবে শুধু  রক্তদান শিবির  থেকে উঠে এল প্রতিবন্ধীদের দাবির কথাও। এদিন কৃষ্ণনাথ কলেজের  ছাত্র  নাসিম সেখ জানান, ইউনিক ডিসএবিলিটি আইডি –  Unique Disability ID (UDID) Card নিয়ে গড়িমসি হচ্ছে। রাজ্যের প্রতিবন্ধীরা এই কার্ড পাচ্ছেন না। কার্ড পেলে বিভিন্ন সরকারি কাজে সুবিধা হয় প্রতিবন্ধীদের।

এদিন কেউ এলেন হুইল চেয়ারে, কেউ এলেন পরিজনের হাত ধরে। শিবিরে উঠে এল উৎসবের মেজাজ। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য প্রতিবন্ধী সম্মিলনীর  মুর্শিদাবাদ জেলা শাখার সম্পাদক রণ দাস বলেন, “ শুধু রক্তদানই নয়। সম্প্রীতি দিবস পালন, স্পোর্টের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের সাথে সমাজের বাকি অংশের যোগাযোগ বাড়ানোর চেষ্টা আমরা করছি। পাশাপাশি প্রতিবন্ধীদের দাবি আদায়ের জন্য রাস্তায় নেমে লড়াই সংগ্রামও চলছে”।এখনও সমাজে রক্তদান নিয়ে রয়েছে ভুল ধারণা। এগিয়ে রক্তদান করে সেই ধারণা ভাঙার আহ্বানও জানালেন রক্তদাতারা।