নেই প্রশিক্ষণ ! জেলা কনভেনশনে দাবি গ্রামীণ চিকিৎসক’দের

হোসেন সাহু, বহরমপুরঃ গ্রামের সাধারণ মানুষ প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য ছুটে যান তাঁদের কাছেই ছুটে যান গ্রামীণ চিকিৎসক বা ‘কোয়াক ডাক্তার’রা। সেই ডাক্তারদের রয়েছে ট্রেনিং-এর অভাব। চিকিৎসকের কাছে পর্যাপ্ত পরিকাঠামো বা সুবিধা নেই। জানালেন ডাক্তারেরা নিজেরাই। এমন ছবি উঠে এল মুর্শিদাবাদ জেলা গ্রামীন চিকিৎসক সংগঠনের।

রোগীদের চিকিৎসায় সমস্যা হচ্ছে খোদ চিকিৎসকদেরই। বাৎসরিক জেলা কনভেনশনে এরকমই বেশ কিছু দাবি তুললেন চিকিৎসকদের একাংশই। গ্রামীণ চিকিৎসক দেবেশ চক্রবর্তী জানান, নামেই ডাক্তার। কোনও রকম প্রশিক্ষণ বা ট্রেনিং তাঁদের নেই। অভাব রয়েছে পরিকাঠামোরও। তিনি আরও জানান, চিকিৎসা করতে গিয়ে অনেকরকম সমস্যায় পড়তে হয় স্বীকৃতি নেই তাই। এসব নিয়েই আলোচনা হল গ্রামীণ চিকিৎসকদের জেলা কনভেনশনে।

জেলা গ্রামীণ চিকিৎসক সমিতির সম্পাদক নুরুল ইসলাম জানান, এই সম্মেলনে স্বাস্থ্য বিষয়ক আলোচনা করা হল। কীভাবে পরিকাঠামো আরও উন্নত করা যায় তা দেখবেন। পাশাপাশি যাতে কোয়াক ডাক্তারদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা যায়, সেই বিষয়েও আলোচনা হয়। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি রুবিয়া সুলতানা সহ অন্যান্য আধিকারিকেরা। সরকারী এই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন মুর্শিদাবাদ জেলার বিভিন্ন প্রান্তের গ্রামীণ চিকিৎসকেরা।