লোনের কিস্তি মেটাতে গয়না কেড়ে শিশুকন্যাকে নদীতে ছুঁড়ে ফেলল প্রতিবেশী !

মাসুদ আলি, সামসেরগঞ্জঃ মাথায় লোনের বোঝা। সামনেই কিস্তি মেটানোর দিন। কিন্তু কাছে নেই টাকা। টাকা জোগাড় করতে গিয়ে প্রতিবেশীর দুই বছর দুই মাসের  শিশুকন্যার কানের দুল, মালা খুলে, সেই শিশুকে নদীতে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল এক মহিলার বিরুদ্ধে।   চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে মুর্শিদাবাদের সামশেরগঞ্জ থানার পুরাতন শিকদারপুর গ্রামে। তবে এখনও উদ্ধার হয় নি শিশুর দেহ। অভিযুক্ত নায়েমা খাতুনকে আটক করেছে সামসেরগঞ্জ থানার পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই নিখোঁজ ছিল ওই শিশুকন্যা। শিশুর মা সুমা খাতুনের দাবি, বাড়ির সামনে থেকেই
ওই শিশুকে নিয়ে যান এক প্রতিবেশী। যিনি আবার  আত্মীয়াও । তাপরর নাকি শ্বাসরোধ করে ফেলে দেন নদীর জলে। মৃতের মায়ের দাবি, পুলিশের কাছে নিজের অপরাধ স্বীকার করেছেন ওই মহিলা।

স্থানীয়দের দাবি, আত্মীয় মহিলাকে জিজ্ঞেস করতেই বেরিয়ে আসে আসল রহস্য। প্রতিবেশীদের আরও দাবি, অভিযুক্ত নায়েম খাতুন নাকি স্বীকার করেছেন তিনিই শ্বাস রোধ করে শিশুকন্যাকে ছুঁড়ে ফেলেছেন নদীর জলে। মাথায় নাকি ছিল বন্ধনের লোনের বোঝা। সেই লোনের কিস্তি দেওয়ার জন্যই নাকি এই কান্ড ঘটান তিনি। পরিবারের দাবি, মহিলার ঘর থেকে উদ্ধার হয়েছে  ওই শিশুর অলংকারও । তবে এখনও মেলেনি ওই শিশুর দেহ। অভিযুক্তর শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছে শিশুর পরিবারও। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নদীতে ডুবিরি নামিয়ে শিশুর খোঁজে নামার প্রস্তুতি চলছে।