বইমেলার শেষ লগ্নে বইয়ের দামে বিপুল ছাড় প্রকাশকদের

নিজস্ব সংবাদদাতা, বহরমপুরঃ মুর্শিদাবাদ জেলা বইমেলার শেষদিন বাঁধ ভাঙল বইয়ের বেচা কেনা। পাঠক টানতে বইয়ের দামে বিপুল ছাড় দিলেন ছোট বড় সব প্রকাশকই। সুযোগ বুঝে মনের মতো বই কিনলেন পাঠকও। তবে ছাড়ের নিরিখে এগিয়ে থাকলেন জেলার প্রকাশকরাই।

ব‌ইমেলায় বাসভুমি প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়েছে দুটি বই। মুর্শিদাবাদ ইতিহাসের কালপঞ্জি ও কবি অরূপ চন্দ্রের কবিতা সংগ্রহ। প্রকাশনা সংস্থা সূত্রে জানা যায়, প্রাগৈতিহাসিক যুগ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত মুর্শিদাবাদ জেলার কালানুক্রমিক বিবরণ রয়েছে ৫১৪ পাতার  মুর্শিদাবাদ ইতিহাসের কালপঞ্জি বইতে। বইয়ের দাম ৫৫০টাকা। প্রকাশক অরিন্দম চন্দ্র বলেন, ওই বইটি বই মেলায় বিক্রি হয়েছে সাড়ে চারশো টাকায়। একইভাবে অরুপ চন্দ্রের পাঁচশো টাকার কবিতার বইয়ে ছাড় দিয়ে মিলেছে চারশো টাকায়। বাসভূমির গবেষণামূলক অন্যতম প্রকাশনা পাঁচ খন্ডে প্রকাশিত “মুর্শিদাবাদ ইতিবৃত্ত”।  পাঁচ খন্ডের একত্রিত দাম আঠারোশো টাকার বেশি। শেষদিন বইটি পাওয়া গেল ১৪৩০ টাকায়।

জেলার প্রথম ‘পেশাদার’ প্রকাশনী সংস্থা আকাশের বই পাওয়া যাচ্ছে অল্প দামে। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সর্বনিম্ন তিরিশ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হয়েছে। তবে জুড়ে দেওয়া হয়েছে শর্ত। পাঁচশো টাকার বইয়ে পাওয়া যাবে ১৫০ টাকা ছাড়। হাজার টাকার বই কিনলে মিলবে ৪০ শতাংশ ছাড়। দু হাজার টাকার বই কিনলে মিলবে পঞ্চাশ শতাংশ ছাড়।

মুর্শিদাবাদ জেলা নিয়ে আগ্রহ সাধারণ পাঠক থেকে গবেষক সকলের। সেই আগ্রহ মেটাতেই তাঁরা জেলার উপর মূলত গবেষণাধর্মী বই প্রকাশ করেন। তাছাড়াও জেলার সাহিত্যিকদের রচনাও প্রকাশ করেন জেলার প্রকাশকরা। পাঠকের কাছে সেই বইয়ের সমাদর কুড়াতেই এই ছাড় বলে জানিয়েছেন প্রকাশকরা।