নতুন বছরে দুটি সেকশন হলিডে সহ প্রায় পঞ্চাশ দিন সরকারি ছুটি কর্মীদের

নিজস্ব সংবাদদাতা, বহরমপুরঃ পুজো মরশুমেই শুরু হয়েছে নতুন বছরের প্রস্তুতি। আগামী বছরের ছুটির হিসেব কষছেন ভ্রমণ বিলাসীরা। তাদের উৎসাহ উস্কে দিল শুক্রবার নবান্ন প্রকাশিত ছুটির তালিকা। তালিকা অনুযায়ী বছরের প্রথমদিন সোমবার কাজের দিন হলেও রাজ‍্য সরকারি কর্মচারীদের জন‍্য ওই দিন ছুটে দিয়েছে সরকার। প্রথম মাসেই সরকারি ছুটি তিনটে। জানুয়ারির ১২, ২৩ ও ২৬ এন আই অ্যাক্টে ছুটি। কিন্তু ১২ ও ২৬ তারিখ শুক্রবার হওয়ায় শনি ও রবিবার ধরে ওই মাসেই দু’বার টানা তিনদিনের ছুটি উপভোগ করবেন সরকারি কর্মীরা। ফলে ঘরের কাছে কোনও বেড়ানোর জায়গায় সহজেই ঢুঁ মারতে পারেন তাঁরা। আবার ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় সপ্তাহেই দুটি ছুটি সরস্বতী পুজোর। পুজোর দিন এন আই অ্যাক্টে আর তার আগের দিন রাজ‍্য সরকারের উপহারে অতিরিক্ত একদিন ছুটি। যে কেউ সোমবার ছুটি নিলে সহজেই টানা পাঁচদিন কম করে চারদিনের ছুটিতে বাঙালির দীঘা, পুরী, দার্জিলিংয়ের যেকোনও এক জায়গায় ঘুরে আসতেই পারেন সপরিবারে কিংবা সবান্ধবে।

মার্চের ও শিবরাত্রি ও দোল মিলিয়ে দিন তিনেক সরকারি ছুটি আছে। দোলের আগের দিন রবিবার। সরকারি দফতরে সপ্তাহের শেষ দুটো দিন এমনিতেই ছুটি থাকে। দোলের দুদিন ধরলে টানা চারদিন ছুটি না নিয়েই ছুটি কাটাতে পারবেন সরকারি কর্মীরা। তবে এপ্রিলে একটু মনখারাপ হবে তাঁদের। মাসে তিন দিন অতিরিক্ত ছুটি থাকলেও হরীচাঁদ ঠাকুরের জন্মদিন শনিবার পরায় ওই দিনের ছুটি মার যাওয়ায় আক্ষেপ করছেন সরকারি কর্মীরা। মে মাসের তিনটি ছুটিও পড়েছে সপ্তাহের মাঝখানে। যাদের পায়ের তলায় সেই সমস্ত সরকারি কর্মীদের এমাস ও মলমাস। জুন মাসে এন আই অ্যাক্টে একদিন ছুটি। ইদের দিন সোমবার। এমাসেও তিনদিন (রাজ‍্য সরকার অতিরিক্ত একদিন দিলে চারদিন) টানা ছুটি পাবেন সরকারি চাকরীজীবিরা। জুলাইতে দুদিন সরকারি ছুটি থাকলেও কর্মীরা ছুটি পাবেন একদিন মহরমে।

ওই মাসেই ভানু ভক্তের জন্মদিন পড়েছে শনিবার। স্বাধীনতা দিবস ১৫ আগস্ট বৃহস্পতিবার। ওই দিন এন আই অ্যাক্টে ছুটি। কিন্তু আগস্টে রাজ‍্য সরকার আরও দু’দিন ছুটি দিয়েছে রাখী বন্ধন ও জন্মাষ্টমী উপলক্ষে। ১৯ ও ২৬ দু’দিনই সোমবার। ফলে এবার পরপর দু সপ্তাহে বরাদ্দ টানা তিনদিনের ছুটি। ইচ্ছে হলেই মনের মতো ছুটি সরকারি কর্মীরা ওই তিন দিন একান্তে ছুটি কাটাতেই পারেন। ফথেয়া দেওয়াজ দহমে একদিন সোমবার ছাড়া সেপ্টেম্বরে অবশ্য কোনও ছুটি নেই সরকারের কর্মীদের। মহালয়া ও মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন এক দিনে হওয়ায় একটা ছুটি মার গিয়েছে সরকারের কর্মীদের। তবে ওই মাসের সাত থেকে আঠারো তারিখ পর্যন্ত টানা ১২ দিন পুজোর ছুটি দিয়ে তা পুষিয়ে দিয়েছে রাজ‍্য সরকার। আবার কালী পুজো, ভাইফোঁটা আর ছট মিলিয়ে নভেম্বরে পাঁচদিন ছুটি থাকবে। যে কেউ ছট পুজোর আগের দিন ছুটি নিলে ৩১ অক্টোবর থেকে আট নভেম্বর পর্যন্ত টানা ন দিন ছুটি উপভোগ করতে পারবেন সরকারি কর্মীরা। এরপর থাকল ডিসেম্বর। সে মাসে ২৫ ডিসেম্বর ছাড়া আর কোনও ছুটি নেই সরকারি হিসেবে। তবে ভ্রমণ পিপাসু সরকারি কর্মীদের অনেকেই বলছেন, ডিসেম্বর বেড়ানোর মাস। জমানো ছুটি খরচ করার এইতো সময়। তবে নতুন বছরে লোকসভা ভোট হবে। তার জন্য ভোটের আগে পরে বেশ কয়েকটি ছুটি বাদ যেতেও পারে বলে মনে করছেন তাঁরা।