হরিহরপাড়া থেকে হাপিস প্রায় পাঁচ লাখের গরু !

নিজস্ব সংবাদদাতা, হরিহরপাড়াঃ রাতের অন্ধকারে, এক না দুই না ছয়টি গরু নিয়ে পগারপার চোর। এই ঘটনা ঘটেছে হরিহরপাড়া থানা থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে। স্থানীয় সূত্রে খবর, হরিহরপাড়ার ট্যাংরামারি এলাকার বাসিন্দা মাইনুল শেখ। গোয়ালে ছিল একটি চারমাসের বাছুর সহ তিনটি গরু। চাষবাস আর গরুর দুধ বিক্রি করেই চলে পরিবার। তবে সোমবার গভীর রাতে গোয়াল খালি করে গরু নিয়ে পালাল চোর। গৃহকর্তা মইনুল শেখ জানান, “রাতে ঘুমোনোর আগে স্বভাববশত গোয়াল ঘরে গিয়ে গরুগুলি দেখে আসেন। শীতের রাতে যাতে ওদের কোন অসুবিধা না হয়, তার জন্য কম্বলও বিছানো ছিল। তবে ভোরে উঠে গোয়াল ঘরে যেতেই দেখেন ঘর ফাঁকা। তিনটি গরুর বাজারদর লক্ষাধিক টাকা। এবং দুটি গরু দিনে প্রায় ১৫ লিটার দুধ দিত। যা বিক্রি করেই চলত পরিবারের সব খরচখরচা। তবে এখন কী হবে মাথায় হাত পরিবারের।”

সোমরাতে হরিহরপাড়ার চোঁয়া গ্রামের আধারপাড়া ও নতুনপাড়াতেও ঘটেছে একই পদ্ধতিতে গরু চুরির ঘটনা। স্থানীয় বাসিন্দারা জানাচ্ছেন মাঝরাতে এলাকায় আসে একটি টেম্পোগাড়ি। তাতে করেই গরু চুরি করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে অনুমান স্থানীয়দের। পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ দেখে টেম্পোগাড়িটিকে শনাক্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

বাড়ি থেকে গবাদি পশু চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল হরিহরপাড়ায়। কেঁদে ভাসাচ্ছেন পরিবারের সদস্যরা। এই চুরির ঘটনায় হরিহরপাড়ার থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে পরিবারের পক্ষ থেকে। প্রায় ১৫ বছর ধরে গোপালন করে সংসার চালাচ্ছেন এই পরিবারগুলি।

গরু ছাড়া কীভাবে চলবে সংসার? অতি সত্বর খুঁজে দেওয়া হোক তাঁদের গরু চাইছেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলি।