‘ঘাটের পাড়ে হাট’ বসেছে নবাবের শহর লালবাগে

নিজস্ব সংবাদদাতা,লালবাগঃ নবাবের শহর মুর্শিদাবাদ। আর নতুন বছরের প্রথমদিন থেকে ভাগীরথী নদীর পাড়ে লালবাগের দক্ষিণ দরজা সংলগ্ন সিরাজদৌল্লা উদ্যানে চলছে নদী উৎসব। জেলা গঙ্গা উৎসব কমিটি ও মুর্শিদাবাদ পৌরসভার যৌথ উদ্যোগে শুরু হয়েছে এই নদী উৎসব। রোজকার বর্জ্য নদীতে ফেলার ফলে দূষিত হয় নদী। সেই নদী দূষণ রুখতে ও জনসাধারনে মধ্যে নদী নিয়ে সচেতনতা গড়তেই এই নদী উৎসব, জানান আয়োজকরা। পাশাপাশি নদী উৎসবকে কেন্দ্র করে বসেছে হাট। সেখানে এলাকার যুবক যুবতীরা দিয়েছেন বই ও খাবারের স্টলও।

লালবাগে ঘাটের পাড়ে বসেছে হাট। হাটে রয়েছে বইয়ের স্টলের পাশাপাশি পাওয়া যাচ্ছে টুকিটাকি খাবার থেকে শুরু করে বিরিয়ানিও। মুর্শিদাবাদ পৌরসভার চেয়ারম্যান ইন্দ্রজিৎ ধর জানান, “নদীমাতৃক এই জেলা। এই জেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে, দেশের সর্ববৃহৎ নদী গঙ্গা। আর রোজ দূষিত হচ্ছে গঙ্গানদী। যা আমাদের এখানে ভাগীরথী নামে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে জেলার মানুষের মধ্যে এই নদী দূষণ নিয়ে রয়েছে সচেতনতার অভাব। তাই সাধারণ মানুষকে সচেতন করাই। এই উৎসবের লক্ষ। নতুন বছরে ঐতিহাসিক শহর লালবাগে নামে পর্যটকদের ঢল। তাই এই সময়ে এই হাটে স্টল দিয়েছেন এলাকার বেকার যুবক-যুবতীরা। ফলে তাঁদের কর্মসংস্থানের একটা ব্যবস্থাও হচ্ছে।”

নদী উৎসবে সিরাজদৌল্লা উদ্যানে বহরমপুর, জিয়াগঞ্জ সহ পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকেও ভিড় জমছে সন্ধ্যায়। আগামী ইংরাজি নববর্ষের দিন থেকে শুরু হয়ে রবিবার পর্যন্ত চলবে এই উৎসব।