বহরমপুর রবীন্দ্র সদনে ‘বাসভূমি উৎসবে’ চাঁদের হাট, সংবর্ধনা দেওয়া হল বিশিষ্টদের।

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্ক, বহরমপুরঃ কারও কবিতার সঙ্গে দীর্ঘ যাপন। কেউ দশকের পর দশক ধরে প্রকাশ করছেন পত্রিকা। কেউ আবার মুর্শিদাবাদের গ্রামে গ্রামে নদী, নালা রক্ষার কাজে ব্রতী। লোক সংস্কৃতি নিয়ে কারও গবেষণা সমৃদ্ধ করছে সংস্কৃতিকে। রবিবার বহরমপুর রবীন্দ্রসদনে এরকমই ১২জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে সংবর্ধনা জানানো হল ‘বাসভূমি’ পত্রিকার পক্ষ থেকে। দীর্ঘ সময় ধরে মুর্শিদাবাদ জেলার সাহিত্য, প্রত্নতত্ত, পুরাতত্ত্ব , নৃতত্ত্ব , লোকসংস্কৃতি প্রভৃতি বিষয় তুলে ধরছে “বাসভূমি পত্রিকা।

সেই পত্রিকার ৪৪ তম বর্ষ পূর্তিতে ‘কবি সম্মেলন ও বাসভূমি উৎসব’ অনুষ্ঠিত হল রবিবার। শামিল হলেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের গুণীজন। এদিন ১২ জনকে ‘জীবনকৃতি পুরস্কার, ‘বাসভূমি সাহিত্য সম্মান’ ও ‘বর্ষসেরা লিটিল ম্যাগাজিন পুরস্কার’ দেওয়া হল বাসভূমির পক্ষ থেকে। রবিবার বহরমপুর রবীন্দ্রসদনে ঝাড়খন্ড, ছত্রিশগড়, আসাম থেকেও বিশিষ্ট লেখক ও শিল্পীরা অংশ নেন অনুষ্ঠানে। এদিন অনুষ্ঠানের শুরুতেই বাসভূমির ৪৪ বর্ষ সংখ্যার উদ্বোধন করা হয়।

মঞ্চে উপস্থিত রয়েছেন বিশিষ্ট অতিথিরা।

এবার বাসভূমির পক্ষ থেকে ৩ জনকে ‘জীবনকৃতি পুরস্কারে’ সম্মানিত করা হয় । পুরাতত্ব গবেষক মালদহের গোপাল লাহা, ইতিহাস ও লোকসংস্কৃতি গবেষক পূর্ব বর্ধমানের ডঃ স্বপন ঠাকুর ও ইতিহাস গবেষক নদীয়ার মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডলের হাতে বাসভূমির পক্ষ থেকে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।এর পাশাপাশি এদিন বাসভূমি সাহিত্য সম্মানে সম্মানিত করা হয় বাঁকুড়ার বিশিষ্ট কবি বিষাণ রুদ্র, নদী ও মৎস্য বিজ্ঞানী মুর্শিদাবাদের ডঃ সুর্য্যেন্দু দে ও মুর্শিদাবাদের বিশিষ্ট নাট্যকার ও লোক সংস্কৃতি গবেষক দীপক বিশ্বাসকে ।

‘বর্ষসেরা লিটিল ম্যাগাজিন পুরস্কার’ দেওয়া হল দেশের ৫টি লিটিল ম্যাগাজিনকে। আসামের হাইলাকান্দির ‘প্রবাহ’, কলকাতার ‘নতুন গতি’, মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জের ‘অনুভব’ , ঝাড়খন্ডের রাঁচির ‘প্রৈতি’ এবং ছড়িশগড়ের ভিলাইয়ের লিটিল ম্যাগাজিন ‘মধ্যবলয়’ কে এই পুরস্কার  দেওয়া হয়।