জিয়াগঞ্জের ‘তিন’ নয়, ‘চার’ খুনের কী রায় দেবে আদালত ? বন্ধুপ্রকাশ হত্যার রায় আজ

মধ্যবঙ্গ ওয়েব ডেস্কঃ  তিনটি খুন নয়। ২০১৯ সালের ৮ অক্টোবর, দশমীর সেই দুপুরে  ৪ টি খুনের ঘটনা ঘটেছিল  জিয়াগঞ্জের লেবুবাগান এলাকায় । অবশেষে সেই খুনের ঘটনায় রায়দান হওয়ার কথা মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট। এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত উৎপল বেহরাকে আগেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উৎপলের বিরুদ্ধে  জমা পড়েছে চার্জশিটও। খুনের সময় গর্ভবতী ছিলেন বন্ধু প্রকাশ পালের স্ত্রী বিউটি পাল মণ্ডল। গর্ভে ছিল ৮ মাসের কন্যা সন্তান। খুনের ফলেই দিনের আলো দেখতে পারেনি গর্ভস্থ শিশু। দীর্ঘ তদন্তের পর  আগেই  আইপিসি’র ৩০২ ও ২০১ ধারায় দায়ের হয়েছে চার্জশিট।

জানা গিয়েছে,  এই কেসে প্রথমবারের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে ‘রাইট ব্লকার’ । রাইট ব্লকার ব্যবহার করে দেখানো হয়েছে জিয়াগঞ্জের  ফেরীঘাটের সিসিটিভি  ফুটেজ। যেখান দেখা গিয়েছে, বন্ধু প্রকাশের বাড়ি যাওয়ার আগে ঘাট পেড়োচ্ছে অভিযুক্ত, সাথে ছিল  ব্যাগ । আরে ঘটনার পর ব্যাগ, টিশার্ট ছাড়াই শুধুমাত্র স্যান্ডো গেঞ্জি, বারমুডা পরে ঘাট পেরিয়ে নৌকায় উঠছেন অভিযুক্ত।

 তদন্তে উঠে এসেছিল হত্যার নৃশংসতাও । তদন্তে জানা গিয়েছে, খুনের পর ধারালো অস্ত্র, ব্যাগ, জুতো ঘটনাস্থলেই ফেলে পালিয়েছিল খুনী। ঘাট পার হওয়ার জন্য নৌকায় ওঠার আগে ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছিল টিশার্টও । নৌকা থেকে আজিমগঞ্জে নেমে  টিশার্ট কিনে বাড়ি ফেরে ওই যুবক। তদন্ত সূত্রে উঠে এসেছে, আগে থেকেই খুনের পরিকল্পনা করেছিল অভিযুক্ত। কেনা হয়েছিল ধারালো অস্ত্র। তদন্তে গুরুত্বপুর্ণ ভূমিকা নিয়েছে সিসিটিভি ফুটেজও । ঘটনাস্থল থেকে বাজেয়াপ্ত হওয়া অস্ত্রে ছিল ধৃতের আঙুলের ছাপ। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, ব্যাগ নিয়ে ঘটনাস্থলের দিকে যাচ্ছেন অভিযুক্ত। কিন্তু সেখান থেকে বেড়িয়ে আসার সময় তার কাছে ছিল না ব্যাগ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ইনস্যুরেন্সের কাগজ নিয়েই চলছিল বিবাদ। সেখান থেকেই এই খুন।  ঘটনাস্থল থেকে বাজেয়াপ্ত হয়েছে ইনস্যুরেন্সের কাগজ। সেখানেই দেখা যাচ্ছে, সেই কাগজে লেগেছিল রক্তের দাগ। তদন্তে  থেকে উঠে এসেছে, ল্যাপস হয়ে গিয়েছিল সেই বীমা । যদিও বন্ধু প্রকাশকে বীমার জন্য টাকা দিয়েছিলেন অভিযুক্ত। সেই থেকেই কি খুন ? উঠছে প্রশ্ন। তদন্তে আরও উঠে এসেছে বন্ধু প্রকাশকের সম্মতিতেই বাড়িতে ঢুকেছিল আততায়ী। ঘটনার ৭৬ জন সাক্ষীর মধ্যে ৪২ জনকে হাজিরা দিতে হয়েছে আদালতে।  সাক্ষ  পরীক্ষা করে দেখেছে আদালত। এবার রায়দানের পালা। কী সাজা হবে উৎপল বেহরার ? সেই দিকেই তাকিয়ে বন্ধু প্রকাশ পালের পরিবার।