ভরতপুরের কংগ্রেস পঞ্চায়েত সদস্য যোগ দিলেন বিজেপিতে

নিজস্ব সংবাদদাতা, বহরমপুরঃ লোকসভা ভোটের আগে বহরমপুর লোকসভা এলাকায় কংগ্রেস শিবিরে ফের ভাঙন ধরাল বিজেপি। ভরতপুর-২ ব্লকের টেয়া বৈদ্যপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কংগ্রেসের সদস্য যোগ দিলেন বিজেপিতে। গত পঞ্চায়েত ভোটে এই পঞ্চায়েত দখল করে বিজেপি। রবিবার বহরমপুরে জেলা বিজেপি কার্যালয়ে বহরমপুর সাংগঠনিক জেলা বিজেপি সভাপতি শাখারভ সরকারের হাত ধরে হয় যোগদান। কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য হলেও কংগ্রেস নেতৃত্ব যোগাযোগ না রাখায় ও প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন দেখেই দলত্যাগ বলে জানান যোগদানকারী সদস্য।

যোগদানকারী পঞ্চায়েত সদস্য শিবুরাম হাজরা জানান, “দল পাল্টানোর কারণ, ২০২৩ সালে ত্রিস্তরীয় নির্বাচনে আমরা কংগ্রেসের কোন নেতাকে পাশে পায়নি। কিন্তু সেই সময় বিজেপির জেলা সভাপতি শাখারভ বাবুকে পাশে পেয়েছিলাম। এবং নরেন্দ্র মোদীর উন্নয়নের অগ্রগতি দেখে আমি আজ বিজেপিতে যোগদান করলাম।” ভোটের আগে এই যোগদানকে ঘিরে উচ্ছ্বসিত বিজেপি নেতৃত্বদের মধ্যেও।

যদিও এই যোগদান ঘিরেও তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। জেলা কংগ্রেস নেতৃত্বের দাবি মোট ৭ জনকে নিয়ে রবিবার যোগদান করেছে শিবরাম হাজরা। যদিও যোগদানকারীরা আগেই কংগ্রেস থেকে বেড়িয়ে গিয়েছিল। এই বিষয়ে জেলা কংগ্রেসের মুখপাত্র জয়ন্ত সাহা জানান, “এই পঞ্চায়েতে তৃণমূলের বিক্ষুব্ধ নেতা হুমায়ুন কবিরের অনুগত কিছু কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করে একটি বোর্ড গঠন করেছিল। সেই বোর্ডের একজন সদস্য ছিলেন শিবরাম। অর্থাৎ কংগ্রেস থেকে সে আগেই বেড়িয়ে গিয়েছিল। এবং তৃণমূলের সাথে যোগদান করেছিল। এবং আজ আবার সে যোগদান করল বিজেপিতে। অর্থাৎ বুঝতেই পারা যাচ্ছে তাঁর আসল জায়গা আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরে। কারণ তিনি হাওয়ার মতন কখন পাল্টাবেন। সেটা আবহাওয়া দপ্তর ছাড়া কেও বলতে পারবে না।”