কেদারচাঁদপুর পঞ্চায়েতে তৃণমূলে এলেন জয়ী কংগ্রেস সদস্য

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওদাঃ লোকসভা ভোটের আগে কেদারচাঁদপুর পঞ্চায়েতে ফের বিরোধী শিবিরে ফাটল ধরাল তৃণমূল। ওই পঞ্চায়েতের জয়ী কংগ্রেস সদস্য পলাশ মন্ডল সোমবার তৃণমূলে নাম লেখানোয় বড়দিনে শক্তি বাড়ল শাসক শিবিরের। এদিন নওদায় তৃণমূলের কার্যালয়ে ব্লক সভাপতি সফিউজ্জামান শেখের হাত থেকে তৃণমূলের পতাকা তুলে নেন তিনি। সফিউজ্জামান বলেন, আগামী দিনে কেদারচাঁদপুরে তিনি সামনে থেকে দাঁড়িয়ে কাজ করবেন। কংগ্রেসে থেকে মানুষের জন্য কাজ করতে পারছিলেন না বলেই তিনি শাসক দলে নাম লিখিয়েছেন বলে এদিন জানান পলাশ।

তবে ভোটের ফলাফলের নিরিখে ওই পঞ্চায়েতে ১৮টি আসনের মধ্যে সংখ্যাধিক্য ছিল বাম-কংগ্রেস জোট। যদিও তাদের একাংশকে দলে টেনে পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন করে তৃণমূল। পলাশ তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় ওই পঞ্চায়েতে ঘাসফুলের সদস্য সংখা দাঁড়াল ১১। বাকি সাত জয়ী সদস্যদের মধ্যে কংগ্রেসের ছ’জন ও সিপিএমের ১ জন আছে ওই পঞ্চায়েতে। শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ এদিন দাবি করেন বাকিরাও খুব তাড়াতাড়ি তৃণমূলে নাম লেখাবেন।

তবে পলাশের এদিনের দলবদল প্রসঙ্গে জেলা কংগ্রেস মুখপাত্র জয়ন্ত দাস বলেন, যেখানে বিরোধীরা জয়ী হয়েছে সেখানে তাদের কাজ করতে দেবে না তৃণমূল তাই বিরোধীদের চাপ দিয়ে দলে টানছে। যদিও এই নীতি তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকেই আছে। আর যারা যাচ্ছেন তাঁরা দেখছেন দইয়ের উপরটা না পাই অন্তত তলাটাতো পাবো। তাই তৃণমূলে নাম লেখাচ্ছেন তাঁরা।