প্লেট সেজেছে বোনলেস ইলিশে। নিজস্ব চিত্র।

মধ্যবঙ্গ ওয়েব ডেস্কঃ কোনোদিন শুনেছেন, ইলিশ তাও আবার নাকি বোনলেস? যে ইলিশের আসল পরিচয়ই হচ্ছে তার কাঁটা, সেখানে এবার কাঁটা বাছার ঝামেলা থেকে মুক্তি। হ্যাঁ, ঠিকই শুনছেন ‘বোনলেস ইলিশ’ এই অভিনব চমকের সাথে মুর্শিদাবাদের বহরমপুর শহরে শুরু হল ইলিশ উৎসব। ১৫ আগস্ট থেকে ১৭ আগস্ট পর্যন্ত তিনদিন ব্যাপি উৎসব চলবে বহরমপুরের কে. এন. কলেজের জেটি ঘাটে তাও আবার গঙ্গা বক্ষে, লঞ্চের ওপরে!

বাঙালির সাথে মাছের সম্পর্ক সুপ্রাচীন। বাঙালির পাতে মাছের জায়গা সর্বদায় আগে। তার ওপর মানতেই হবে ইলিশ হচ্ছে সব মাছেদের রাজা। এই বর্ষায় ইলিশের মরশুমে বাঙালি ছুটে যায় সুন্দরবনের বাঘ দেখতে এবং ইলিশ খেতে। এমনই সময় বহরমপুর তথা মুর্শিদাবাদবাসীর ইলিশের স্বাদ মেটাতে বিগত পাঁচ বছরের মতো এবারও ‘টু-বি ক্যাটারারের’ উদ্যোগে ভাগীরথীর বক্ষে এবারও শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপি এই ইলিশ উৎসব।

এই উদ্যোগের, অন্যতম কর্ণধার বিশ্বদীপ মণ্ডল জানান, প্রথম বছর এবং দ্বিতীয় বছর পালন করার পর, প্রায় দুই বছর কোভিডের কারণে কোনও রকমের আয়োজন করা হয়নি। তাই প্রথমবার যেমন গঙ্গা বক্ষে শুরু করেছিলাম তেমনই এবারও আমরা আবার ফিরে এসেছি এই গঙ্গা বক্ষেই আমাদের প্রিয় ইলিশ উৎসবকে পালন করতে।

এবারের ইলিশ উৎসবে প্রায় ১৮ রকমের ইলিশের পদ নিয়ে এসেছেন তাঁরা। আসুন জেনে নেওয়া যাক কি কি রয়েছে এই তালিকায়, ইলিশ মাছের মাথা দিয়ে কচুর শাক, ইলিশ কাটলেট, ইলিশ মাছ ভাজা, ইলিশ ফিঙ্গার, ইলিশ কছু বেগুনের ঝোল, দই ইলিশ, ইলিশ ভাপা, কাঁচালঙ্কা ইলিশ, আম ইলিশ, ইলিশ পাতুড়ি, গন্ধরাজ ইলিশ, ঢাকাইয়া ইলিশ দম পোলাও এছাড়াও আরও অন্যান্য রকমের পদ রয়েছে।

তবে এই উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ ছিল বোনলেস ইলিশ অর্থাৎ সম্পূর্ণ কাঁটা ছাড়া। স্বাধীনতা দিবসের সন্ধ্যে বেলায় বহরমপুরবাসীরা ইলিশের ভিন্ন স্বাদ নিতে ভিড় করেন ইলিশ উৎসবে। আগামী দিনে আরও বড় ভাবনার সাথে বাঙালির কাছে আসতে ইচ্ছুক আয়োজকেরা।