রঙিন ওড়নার ফাঁসে আত্মঘাতী বিএড পড়ুয়া

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ ছাদের সিলিংয়ে ঝুলছে রঙিন ওড়না। সেখানেই ঝুলে আত্মঘাতী হল এক বিএড পড়ুয়া। সকালে পরিবারের সাথে বসে খেয়েছেন চা,মুড়ি। কিছুক্ষণ বাদে ঢোকেন ঘরে। তারপরেই নিজের ঘরে গলায় ওড়নার ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হয় সে। ঘটনায় শোকের ছায়া দৌলতাবাদের বাজারপাড়া এলাকায়। ওই যুবকের ঘর থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি সুইসাইড নোটও। যার প্রথম লাইনে লেখা, ‘আমি হতাশ’। – এই খবর মিলেছে দৌলতাবাদ বাজারপাড়া এলাকার বাসিন্দা। মৃত অনুরাগ সরকার প্রথম বর্ষের বিএড পড়ুয়া ছিলেন।

ঘরে ঢুকে কিছুক্ষন পর ঘর না খোলায় পরিবারের সদস্যরা দরজা ভেঙে দেখে ঘরের মধ্যে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে অনুরাগ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দৌলতাবাদ থানার পুলিশ। কী কারণে এমন ঘটনা ঘটাল যুবক তা বুঝে উঠতে পারছে না পরিবারের সদস্যরা।

বিএড পড়ুয়ার মৃত্যুর ঘটনায় মনরোগ বিশেষজ্ঞ সোহিনী দাস জানিয়েছেন, “মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন ওই যুবক। সকালে মা বাবার সাথে বসে চা খেয়েছেন, এই ঘটনা থেকে বোঝা যাচ্ছে তিনি তখনও এই চরম সিদ্ধান্ত নেননি। তবে ঠিক কী কারণে সে আত্মঘাতী হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট না। তবে লেখা চিঠি থেকে বোঝা যায়, সে উল্লেখ করেছে হতাশ। ফলে বর্তমান সময় ও পারিপার্শ্বিক অবস্থা থেকে সে হতাশ। যা আমাদের জন্যও হতাশার। অনুরাগের ব্যক্তিগত সমস্যাও থাকতে পারে কিন্তু, বর্তমান সময়ে রাজ্যে শিক্ষকদের অবস্থাও বোধহয় আত্মহননের পথে ঠেলে দিল ওঁকে।”