বিড়ি শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে জাতীয় সড়ক অবরোধ

নিজস্ব সংবাদদাতা, জঙ্গিপুরঃ  বিড়ি শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধিরা দাবিতে রবিবার রাস্তা অবরোধের হল    বিড়ি শিল্পে যুক্ত সংগ্রাম কমিটির ডাকে  । জঙ্গিপুরে  সাজুর মোড় ও উমরপুর মোড়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক   অবরোধ হয়। প্রায় ১৫ মিনিট অবরুদ্ধ থাকে রাস্তা।  এদিন অবরোধে শামিল হলেন সিটু, আইএনটিইউসি সহ ৭ টি সংগঠনের সদস্যরা। সিপিএম, কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন থাকলেও। এদিন ছিল না তৃণমূল ও বিজেপির ইউনিয়ন।  এদিন রাস্তা অবরোধের আগে দীর্ঘক্ষণ সভা হয়। সভা থেকে মালিক পক্ষ , সরকারের পাশাপাশি তৃণমূল, বিজেপিকেও নিশানা করেন শ্রমিক নেতারা। সাজুর মোড়ে সভায় মুর্শিদাবাদ জেলা বিড়ি মজদুর অ্যান্ড প্যাকার্স ইউনিয়নের জেলা সভাপতি মহম্মদ আজাদ বলেন, ” সরকার মালিক পক্ষের হয়ে  কাজ করছে তাই শ্রমিকদের  মজুরি নিয়ে হুঁশ নেই সরকারের। শোষণ হচ্ছে শ্রমিকদের উপর”।

রাজ্য সরকারের বিড়িশ্রমিকদের মজুরির শেষ বিজ্ঞপ্তি বেরিয়েছিল তিনবছর আগে ২০২০ সালে। সেখানে বলা হয়েছে প্রতি ১০০০ বিড়ি বেঁধে মজুরি পাবার কথা ২৬৭ টাকা ৪৪ পয়সা। তবে ভোট আসে ভোট যায়, পাল্টায় না বিড়ি শ্রমিকদের দুর্দশার ছবিটা। ২০২১ সালের ২৮ সেপ্টেম্বরে হয়েছে বিড়ি শ্রমিক ও মালিক চুক্তি। সেই চুক্তি অনুযায়ী হাজার বিড়ি বেঁধে ১৭৮ টাকা মজুরি পাওয়ার কথা বিড়ি শ্রমিকদের। কিন্তু তার পর আর বাড়েনি মজুরি।   শ্রমিক সংগঠনগুলির দাবি, বাড়াতে হবে মজুরি। দিতে হবে সরকার নির্ধারিত নূন্যতম মজুরি। এদিন সিটু, আইএনটিইউসি ছাড়াও আন্দোলনে শামিল হয় ইউটিইউসি, এআইটিইউসি, এফআইটিইউ, এআইইউটিইউসি, এআইসিসিটিইউ। এদিন শাসকদলকেও নিশানা করেছেন সিটু নেতারা। দিন রাস্তা অবরোধের পর মজুরি না বাড়লে বড় আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শ্রমিকরা। শুরু রাজনৈতিক তরজাও। কিন্তু আদৌ কবে বাড়বে বিড়ি শ্রমিকদের মজুরি ? সেদিকে তাকিয়ে জঙ্গিপুর মহকুমার ৯ লক্ষ বিড়ি শ্রমিক।