‘মুখ্যমন্ত্রীর মুখ’ অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় ! অধীরের দাবী ঘিরে শুরু তরজা

নিজস্ব সংবাদদাতা, বহরমপুরঃ রাজ্যের মানুষের আস্থা, বিশ্বাস, ভরসা অর্জন করেছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় ।অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করে একটা নির্বাচন হোক এমনটাই দাবি জানালেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি, বহরমপুরের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

শনিবার সকালে মুর্শিদাবাদ জেলা সফরে এসেছেন হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। বিচারপতির জেলা  সফরের দিনেই বহরমপুরে সাংবাদিক বৈঠক থেকে অধীর বলেন, “হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, তিনি বাংলার মানুষের কাছে যে আস্থা, বিশ্বাস, ভরসা অর্জন করেছেন আমরা চাইব আগামী দিনে এই বাংলায় বিচারক অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ করে একটা নির্বাচন হোক। সেই নির্বাচন যদি হয় আমি কায় মন বাক্যে এই মানুষটাকে ভোট দিতে আগে লাইনে দাঁড়াব। কারন মানুষ তাঁকে বিশ্বাস করছে ভরসা করছে। এটা এক নতুন দিগন্ত তৈরি হবে যদি এই সমস্ত ব্যক্তিত্বকে রাজনীতির ময়দানে এনে তাদেরকে রাজ্য পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়।”

এদিন কলকাতা স্টেশন থেকে হাজারদুয়ারি এক্সপ্রেসে করে বহরমপুর স্টেশনে নামেন চিফ জাস্টিস অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। জেলায় দিনভর রয়েছে একাধিক কর্মসূচী। এদিন বহরমপুর থেকে লালবাগের হাজারদুয়ারী প্যালেস সফরেও যান তিনি। এরপর বহরমপুরে এসে উদ্বোধন করবেন শহীদ ক্ষুদিরাম পাঠাগারে একটি ক্যান্সার প্যালিয়েটিভ কেয়ার ইউনিটের। এদিনই ক্ষুদিরাম পাঠাগারের লাইব্রেরি, রিডিং রুমের উদ্বোধন করবেন তিনি। দুপুরে বহরমপুর রবীন্দ্রসদনে মুক্তমঞ্চে একটি সেমিনারেও বক্তব্য রাখবেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

তবে এদিন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করার মন্তব্য করেন বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরী। আর তারপরেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। সুর চড়িয়েছেন মুর্শিদাবাদের তৃণমূল সাংসদ আবু তাহের খান। তিনি বলেন, ”  যদি অভিজিৎবাবু বিজেপি’র হয়ে দাঁড়ান, অধীরবাবু বিজেপিকে ভোট দেবেন ? : অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ ! অধীরের দাবীতে তৃণমূলের খোঁচা বিধানসভা ভোটে বিজেপির সাথে আঁতাত করে বহরমপুরের আসন ছেড়ে দিয়েছেন তিনি। এবার লোকসভা ভোটেও তিনি বিজেপির সাথে আঁতাত করতে চাইছেন।” অধীরের মন্তব্য নিয়ে যদিও কিছু বলতে চান নি বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।