নবগ্রামে জাতীয় সড়কে উদ্ধার বিপুল পরিমাণ ফেনসিডিল, তিনদিনে উদ্ধার প্রায় ৫০০০ বোতল ফেনসিডিল !

নিজস্ব সংবাদদাতা, নবগ্রামঃ নবগ্রামের পলসন্ডায় জাতীয় সড়কে অভিযান চালিয়ে প্রচুর পরিমানে ফেনসিডিল উদ্ধার করল পুলিশ। ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে একজনকে। পুলিশ সূত্রে খবর, সোমবার সকালে নবগ্রাম থানার পুলিশ পলসন্ডা মোড়ে অভিযান চালায় পুলিশ। একটি চার চাকা গাড়ি আটক করে তল্লাশি চালাতেই গাড়ি থেকে উদ্ধার হয় থরে থরে সাজানো ফেনসিডিলের শিশি। উদ্ধার হয় প্রায় ১৩০০ বোতল ফেনসিডিল। পুলিশ আরও জানিয়েছে, এই ফেনসিডিল উত্তর দিনাজপুর থেকে নিয়ে আসা হয়েছিল এবং সাগরপাড়ার সীমান্ত এলাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। এই ঘটনায় গাড়ি চালককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

শনিবার রাতে এবং দিনে মুর্শিদাবাদের দুই জায়গা থেকে উদ্ধার হজয়েছে বিপুল পরিমাণে ফেনসিডিল। এক, ধুলিয়ান গঙ্গা স্টেশন রেলগেট সংলগ্ন এলাকায় তল্লাশি চালায় পুলিশ। এবং সেখান থেকে ধুলিয়ান গঙ্গা স্টেশন রেলগেট সংলগ্ন এলাকায় তল্লাশি চালায় পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় ২৯০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার হয়েছিল। এবং সেখানেও প্রায় ৫ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করে। তাঁর মধ্যে দুজন ছিলেন পার্শ্ববর্তী রাজ্য বিহারের। দুই, ভোরের আলো ফুটতেই চলছিল সুতি থেকে বাংলাদেশে ফেনসিডিল পাচারের চেষ্টা। লক্ষীপুর গ্রাম পঞ্চায়েত মধ্যপাড়া এলাকা থেকে বাংলাদেশি সহ দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সেখান থেকে গ্রেপ্তার করা হয় জাহাঙ্গীর আলম ও সহিদুল ইসলামকে। ধৃত জাহাঙ্গীর আলম বাংলাদেশের চাপাই নবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জের বাসিন্দা। অন্যদিকে সহিদুল ইসলাম মালদার বাসিন্দা।

শনিবার থেকে সোমবার এই নিয়ে প্রায় ৫০০০ এরও বেশি ফেনসিডিল উদ্ধার হয়েছে মুর্শিদাবাদ জেলা থেকে। তার মধ্যে ভিন রাজ্যের দুই জন এবং বাংলাদেশের দুই জন। প্রশাসনের ওপরও উঠছে প্রশ্ন। এছাড়াও এত বিপুল পরিমাণ ফেনসিডিল আসছে কোথা থেকে? সেই সব নিয়েও প্রশ্ন উঠছে।