চারদিনে ১৫ টি ছবি বিক্রি চিত্রচয়নের চারুকলা উৎসবে

নিজস্ব সংবাদদাতা, বহরমপুরঃ ছবি বিক্রি হচ্ছে। মানুষের দেওয়ালে শোভা পাচ্ছে সেই ছবি। মানুষ সেই ছবি আদর করে টাঙিয়ে রাখছে। এইটাই একজন শিল্পীর সবচেয়ে বড় পাওয়া, জানালেন চিত্রশিল্পী সৌমেন্দ্রনাথ মণ্ডল। তিনি চিত্রচয়নের কর্ণধার। ‘চিত্রচয়ন’ শহরে আয়োজন করেছে চারুকলা উৎসবের। শহরে চতুর্থ দিনে এই উৎসবে বাড়ছে ভিড়।

৬ই জানুয়ারি থেকে বহরমপুর পৌর আর্ট গ্যালারিতে শুরু হয়েছে চিত্রচয়নের চারুকলা উৎসবের। শহরতলি এবং শহরের বাইরের বহু চিত্রশিল্পী থেকে শুরু করে হস্তহিল্পীরাও এই ৫ দিনের চারুকলা উৎসবে অংশগ্রহন করেছেন। শীতের সন্ধ্যায় চারুকলা উৎসবে বাড়ছে ভিড়। শহরের শিল্পমোদী মানুষ আসছেন ছবি দেখতে। রোজকার ইঁদুর দৌড়ের মাঝে একটা ব্রেক নেওয়া নেওয়া উচিত, বসে ভাবা উচিত। ছবি দেখা উচিত। প্রদর্শনীতে এসে জানালেন কীভাবে বাচ্চা বয়স থেকেই আর্টের সাথে পরিচয় করানো যায়। কীভাবে একটা ভালো মানুষ তৈরি করা যায় জানালেন শহরের এক নৃত্য শিল্পী ও শিক্ষক সৌমী সাহা চৌধুরী।

ইতিমধ্যে চিত্রচয়নের চারুকলা উৎসবে বিক্রি হচ্ছে শিল্পীদের ছবিও। নিজের প্রথম প্রদর্শনীতে ছবি বিক্রির পরের অভিজ্ঞতা জানালেন শিল্পী প্রীতি চক্রবর্তী। জানালেন, আমার আঁকা ছবি নিয়ে এই প্রথম প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছি। আর সেখান থেকে ছবি বিক্রি হলে ভালো তো লাগবেই। তবে আছে মনখারাপও। এত দিন আমার বাড়ির দেওয়ালে যে ছবি থাকত, তা এখন অন্যের দেওয়ালে ঝুলবে। আমার দেওয়ালটা এবারে ফাঁকা লাগবে।

বিকেল থেকেই চিত্রপ্রেমীদের ভিড় বাড়ছে চারুকলা উৎসবে। ১০ তারিখ শেষ হবে এই উৎসব।