লালগোলার প্রতারিত চাকরিপ্রার্থীর বাড়িতে মীনাক্ষী, ধ্রুবজ্যোতি

লালগোলার প্রতারিত চাকরিপ্রার্থী যুবক আব্দুর রহমান আত্মহত্যার ঘটনায় ১৯ দিন পেড়িয়ে গেলেও এখনও মূল অভিযুক্ত গ্রেপ্তার হয়নি। তরতাজা ছেলে হারানোর শোকে পাথর গোটা পরিবার। শনিবার সকালে সেই শোকার্ত পরিবারের ইনসাফের দাবিতে ডিওয়াইএফআই এর রাজ্য সভানেত্রী মীনাক্ষী মুখ্যার্জী ও রাজ্য সভাপতি ধ্রবজ্যোতি সাহা ওই যুবকের পরিবারের সাথে দেখা করলেন। আত্মঘাতী যুবকের পরিবারের দাবি তারা পুলিশি তদন্তে খুশি নন তারা সিবিআই তদন্ত চাইছেন। তাদের আরও অভিযোগ লালগোলা থানার পুলিশ নানা ভাবে তাদের হুমকি দিচ্ছেন ।
যদিও এবিষয়ে পুলিশের কোন প্রতিক্রিয়া মেলেনি। আগামী ২৯শে অক্টোবর ইনসাফের দাবিতে ডিওয়াইএফআই এর পক্ষ থেকে লালগোলা থানা ঘেরাওয়ের ডাক দেওয়া হয়েছে যদি মূল অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার না করা হয়।
উলেখ্য গত ২৭শে সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার নিজের বাড়ির কাছেই চাষের জমিতে আত্মঘাতী হয়েছিলেন লালগোলার চাকরিপ্রার্থী আব্দুর রহমান। উদ্ধার হয়েছিল একটি সুইসাইড নোটও। এই ঘটনায় লালগোলা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয় পরিবারের পক্ষ থেকে। দুদিন পর ৩০শে সেপ্টেম্বর কবর থেকে তার মৃতদেহ তুলে ময়নাতদন্ত করা হয়।
শনিবার দুপুরে লালগোলার সারপাখিয়া গ্রামে আত্মঘাতী চাকরিপ্রার্থীর পরিবারের সাথে দেখা করে সমবেদনা জানান ডি ওয়াই এফ আই সভানেত্রী মীনাক্ষী মুখ্যার্জী, ডি ওয়াই এফ আই রাজ্য সভাপতি ধ্রুবজ্যোতি সাহা। এদিন শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানোর পর কার্যত শাসক দলের বিরোধিতায় সুর চড়ান মীনাক্ষী মুখার্জী।