রঘুনাগগঞ্জে অমানবিক কান্ডে ! মা শিশুকে রাস্তায় ফেলে পালিয়ে গেল নিশ্চিয়যান

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ  অমানবিক ছবি উঠে এল মুর্শিদাবাদের  রঘুনাথগঞ্জে ।  টাকা দিতে অস্বীকার করায় রাস্তাতেই প্রসূতি ও নবজাতকে ফেলে পালিয়ে গেল  নিশ্চয়যান। এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছে  জঙ্গীপুর মহকুমা হাসপাতালের এক  নিশ্চয়যানের বিরুদ্ধে।

বুধবার  জঙ্গীপুর মহকুমা হাসপাতালে থেকে   নিশ্চয়যানে করে মায়ের বাড়ি বীরভূমের কাশিমনগর ফিরছিলেন সদ্য মা হওয়া এক যুবতী । সাথে ছিল শিশুও । পথে বিনামূল্যে এই নিশ্চয় যানের চালক পরিবারের কাছ  থেকে ৩০০  টাকা দাবি করে বলে অভিযোগ পরিবারের। পরিবারের দাবি,  তাদের কাছে টাকা না থাকায় তারা চালককে ৫০ টাকা দিতে যায়।  চালক সেই টাকা নিতে অস্বীকার করে । মা ও শিশুকে   মাঝ রাস্তায় নেমে যেতে বলে বলে  গাড়ির চালক । অভিযোগ,  রঘুনাথগঞ্জ মূরারই রাজ্যসড়কের জরুর এলাকায়  নবজাতক সহ মাকে  গাড়ি থেকে নামিয়ে পালিয়ে যায় ওই নিশ্চয়যান  চালক ।

রাস্তার পাশেই বসে থাকেন তারা।  স্থানীয়রা তাদের দেখতে পেয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই  বিষয়টি জানতে পারে । স্থানীয়রা জঙ্গীপুর হাসপাতাল ও থানায় ফোন করেন এবং বিষয়টি জানান।

নিশ্চয়যান চালকের এমন কান্ডে হতবাক হাসপাতাল কতৃপক্ষ। জঙ্গিপু মহকুমা হাসপাতালের অ্যাসিসটেন্ট সুপার প্রশান্ত কুমার মন্ডল,  জানান আমরা বিষয়টি জানতে পারেছি, ঘটনায় তদন্ত করা হবে। হাসপাতাল কতৃপক্ষের  পক্ষ থেকে পরে আরেকটি  নিশ্চয়যান পাঠিয়ে প্রসূতি ও নবজাতককে বাড়ি পাঠানো হয়।