ভরতপুরের সার ব্যবসায়ী খুনের নেপথ্যে কী ?

মধ্যবঙ্গ নিউজ ব্যুরোঃ ০৯ অক্টোবরঃ  ভরতপুরের সন্ধিপুরে সার ব্যবসায়ী খুনে  উঠে এলো নতুন তথ্য। শনিবার সন্ধিপুরের বিলের কাছে উদ্ধার হয়   ব্যবসায়ী কাজল দত্তের  ক্ষতবিক্ষত মৃত দেহ।  সাত সকালে কুপিয়ে খুন করা হয় তাঁকে  এর পরেই গ্রেফতার করা হয় সুমন্ত সেন নামের এক ব্যক্তিকে। পুলিশ তদন্তে নেমে তারই প্রতিবেশি ব্যবসায়ী সুমন্ত সেনকে গ্রেফতার  করেছে । রবিবার তাঁকে কান্দি মহকুমা আদালতে তোলা হয়। পুলিশ ৬ দিনের পুলিশি হেফাজতের আবেদন জানালে বিচারক তাঁকে ৪ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন।

সূত্রের খবর, কাজল দত্ত খুনে গ্রেপ্তার হওয়া সুমন্ত সেন মানসিকভাবে সুস্থ নন ।  ২০১৬ সাল থেকে তার মানসিক চিকিৎসা চলছে। জটিল অসুখে ভুগছেন তিনি।

কী  কারনে খুন করল কাজল দত্তকে ?  উত্তরে ধৃতের দাবি তার মাথায় ঠিক ছিল না তাই এই খুন করেছেন । যদিও মনোবিদদের  দাবি এই ধরণের ঘটনার পিছনে থাকতে পারে  সাইকোসিস ।  সাইকোসিসে আক্রান্ত হলে  ডিলিউসন হয় রোগীর । ঠিকমতো অষুধ না খেলে বাড়তে পারে অসুখ।  এর ফলেও এই রকম  কান্ড ঘটতে পারে বলে জানাচ্ছেন  চিকিৎসক , মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞরা । চিকিৎসকদের  পরামর্শ, মানসিক রোগের ঠিকমতো চিকিৎসা প্রয়োজন। রোগী যাথে ওষুধ খায় সেই দিকেও খেয়াল রাখা দরকার পরিবারের সদস্যদের।