ভগবানগোলায় পঞ্চায়েত অফিসে ঘেরাও বিক্ষোভ মহিলাদের

নিজস্ব প্রতিবেদন: গরীব কেন ঘর পাবে না? এই প্রশ্ন নিয়েই ক্ষোভে ফেটে পড়লেন গ্রামের মহিলারা। মাথা গোঁজার ঠাই না থাকায় ভেবেছিলেন সরকারি সহায়তা পেয়ে ঘর বানাবেন, কিন্তু সেই আশা পূরণ হয় নি। পরিবর্তে যারা যোগ্য নয়, তারা পাচ্ছে ঘর তৈরির টাকা- প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় দুর্নীতি ও গাফিলতির অভিযোগে আবারও পঞ্চায়েত অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ গ্রামবাসীদের। গত ১৮ ই সেপ্টেম্বরের পর ফের সোমবার ভগবানগোলা ১ নম্বর ব্লকের ৪ নম্বর মহিষাস্থলি গ্রাম পঞ্চায়েত অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ চলে। পঞ্চায়েত প্রধান উপ প্রধানকে ঘেরাও করে চলে বিক্ষোভ। স্থানীয় গোপালনগর গ্রামের মহিলারা একজোট হয়ে ক্ষোভে ফেটে পরেন। অভিযোগ, গোপালনগর গ্রামে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার লিস্ট বেরোলেও সেই গ্রামে যারা ঘর তৈরির যোগ্য তাদের কারও নাম নেই।

গোপালনগরের বাসিন্দাদের অভিযোগ নিয়ে সুর চড়ান স্থানীয় ডি.ওয়াই.এফ.আই. নেতৃত্ব।

গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পরে এলাকায় সুষ্ঠভাবে সার্ভে না হওয়ার কথা স্বীকার করে নেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য আবুল বাশার।

যারা যোগ্য তাদের ঘর তৈরির টাকা দেওয়া হোক- এই দাবিতে পঞ্চায়েত প্রধানের কাছে স্মারকলিপিও জমা দেওয়া হয়। যদিও পঞ্চায়েত প্রধানের সাফাই, অভিযোগগুলি খতিয়ে দেখতে হবে।

সমস্যার সমাধান না হলে পুনরায় পঞ্চায়েতে ঘেরাও বিক্ষোভের ডাক দেওয়া হয় গ্রামবাসীদের তরফে।