বিস্ফোরক বড়ঞার বিধায়ক !

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ এবার বিধায়কের  নিশানয় প্রাক্তনরা! জগাই, মাধাই, গদাই বিজেপির হাত শক্ত করছে, দুর্নীতিগ্রস্ত নেতাদের প্রশ্রয় দেবেন না – বড়ঞায় বিজয়া সম্মিলনী মঞ্চ থেকে নাম না করে প্রাক্তন ব্লক ও যুব তৃণমূল সভাপতিকে কটাক্ষ করলেন বড়ঞাযর   বিধায়ক জীবনকৃষ্ণ সাহা । মঞ্চ থেকে তীব্র কটাক্ষের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েও বিক্ষুব্ধদের প্রতি সুর চড়ালেন । এদিনের বিজয়া সম্মিলনীতে উপস্থিত ছিলেন পরিবহণ  মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী, বহরমপুর মুর্শিদাবাদ সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল সভানেত্রী শাওনি সিংহ রায় সহ তৃণমূল নেতৃত্ব , কর্মীরা। এদিনের মঞ্চে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি একাধিক পঞ্চায়েতের প্রধান,  প্রাক্তন ব্লক ও যুব তৃণমূল সভাপতির অনুপস্থিতি প্রসঙ্গ কার্যত উড়িয়ে দেন তৃণমূল নেতৃত্ব। অনুপস্থিতির কারণ নিয়েও প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান।

উল্লেখ্য দিন কয়েক আগে বড়ঞায় প্রকাশ্যে আসে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল। পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির ডাকা বিজয়া সম্মিলনী থেকে বিধায়ক, ব্লক তৃণমূল সভাপতি ও যুব সভাপতির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন দলেরই একাংশ। তাদের নিশানায় ছিল ব্লক তৃণমূল সভাপতি রবিন ঘোষ, বিধায়ক জীবন কৃষ্ণ সাহা ও ব্লক যুব সভাপতি সামশেরজামান। সেই  বিজয়া সম্মিলনীতে দেখা যায়    প্রাক্তন ব্লক তৃণমূল সভাপতি গোলাম মুর্শেদ জর্জ, প্রাক্তন ব্লক যুব সভাপতি মাহে আলমকে। সভায় ৭টি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান , মেম্বার ও পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যদেও দেখা গিয়েছিল । সভা থেকেই দলের ব্লক সভাপতি ও বিধায়কের বিরুদ্ধে সুর চড়ান দলেরই একাংশ। অন্যদিকে এদিন জেলা নেতৃত্ব, রাজ্য নেতৃত্বের উপস্থিতিতে বিধায়ক পাল্টা প্রাক্তনীদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ নিয়ে সরব হলেন । যা নিয়ে তৃণমূল শিবিরে অস্বস্তি তুঙ্গে।