বাউল ফকির সুফি গানের উৎসব মুর্শিদাবাদে

মধ্যবঙ্গ নিউজ, বহরমপুরঃ চলতি বছর এপ্রিলের শুরুতে নবাব নগরী মুর্শিদাবাদে বসবে বাউল ফকির উৎসব। বাউল ফকির আর সুফি গান নিয়ে অনুষ্ঠিত এই উৎসবের নামকরণ করা হয়েছে ‘ভাগীরথী বাউল ফকির উৎসব।’ ওই উৎসবে পদ্মার এপার ওপারের বাউল ফকিররা শোনাবেন লোকগান। রবিবার বহরমপুরে যুগাগ্নির মহলা কক্ষে এক সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির হয়ে এই উৎসবের মূল উদ্যোক্তা অভিনেতা বাদশা মৈত্র সেকথাই জানান। তিনি বলেন, “এপ্রিলের এক ও দুই তারিখ দু’দিন ধরে লালবাগের মুর্শিদাবাদ পার্কে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হবে।” আর সেই লোকগান অনুষ্ঠিত হবে লালবাগের আমবাগানে। পয়লা এপ্রিল প্রভাতফেরির মধ্য দিয়ে এই অনুষ্ঠানের সূচনা হবে। এদিনের আলাপচারিতায় মুর্শিদাবাদের ভূমিপুত্র বাদশা বলেন, “ বাংলাদেশের টুনটুন ফকির আসবেন। এই বাংলার সাধন দাস বৈরাগ্য, কানাই দাস বাউল, মনসুর ফকির, আক্কাশ ফকির, অনাথবন্ধু দাস, রাধেশ্যাম দাস, শ্যাম গোঁসাইয়ের মত জনা তিরিশ শিল্পীও অংশ নেবেন এই উৎসবে।” তিনি বলেন, “কোনও প্রেক্ষাগৃহে নয় লোকশিল্পীরা তাঁদের মর্জি মাফিক আমবাগানে বসে গান গাইবেন দিনভর। তাঁদের জীবনের নানান গল্প শোনাবেন। দলমত নির্বিশেষে এই উৎসবে সকলে অংশগ্রহণ করবেন বলে আশা করি। আলাদা করে কোনও বিশিষ্ট্য ব্যক্তি বলে কেউ থাকবেন না। শিল্পীরাই এই অনুষ্ঠানের ভিআইপি।” ভেদাভেদের এই দুঃসময়ে এই গানগুলির প্রত্যেকটি লাইন শব্দ ধরে ধরে বুঝতে পারলে এই গানগুলিই আমাদের পথ দেখাবে বলে দাবি করেন এই অভিনেতা। ভবিষ্যতে এই অনুষ্ঠান আরও বড়ভাবে করা হবে বলে জানান বাদশা।

এই উৎসবকে কেন্দ্র করে যে কমিটি তৈরি হয়েছে সেই কমিটির সভাপতি চিকিৎসক সিদ্ধার্থ ঘোষ, যুগ্ম সম্পাদক সুপ্রিয় মুখোপাধ্যায় , নিয়াজউদ্দিন সেখ , মুর্শিদাবাদ হেরিটেজ অ্যান্ড কালচারাল ডেভল্পমেন্ট সোসাইটির সম্পাদক স্বপন ভট্টাচার্য সহ অন্যান্যরাও এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, এই জেলায় প্রত্যেক বছর বাউল ফকির সংঘের উদ্যোগে বাউল ফকির উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। সরকারি বেসরকারি স্তরে করোনা পরবর্তী সময়ে অনুষ্ঠান কম হওয়ায় এই জেলার লোকশিল্পীরা আর্থিকভাবে অনেকটা পিছিয়ে পড়েছেন। সাম্প্রতীক অতীতে এই জেলার লোকশিল্পীরা নানাভাবে আক্রান্তও হচ্ছেন, যা উদ্বেগের বলেও এদিন জানিয়েছেন এজেলার একাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তি।