বহরমপুরের কোন বাস স্ট্যান্ড থেকে, কখন, কোন রুটের বাস ছাড়ে? – দেখে নিন!

Debonil Sarkar : মুর্শিদাবাদ জেলার সদর শহর বহরমপুর। এই বহরমপুরে রোজ বিভিন্ন কাজে বহু মানুষের আনাগোনা। জেলা ও জেলার বিভিন্ন প্রান্তে যেখানে রেল পরিষেবা নেই সেসব জায়গায় যোগাযোগের জন্য বাসই একমাত্র ভরসা।বহরমপুরে রয়েছে বেশ কয়েকটি সরকারী ও বেসরকারী বাসস্ট্যান্ড। আজ মধ্যবঙ্গের বিশেষ ‘জানকারী’ প্রতিবেদনে আমরা দেখে নেব বহরমপুর শহর থেকে মুর্শিদাবাদ জেলা তথা প্রতিবেশী জেলা ও রাজ্যের বিভিন্ন একালার বাসের রুট ও সময় সারণী।
বহরমপুর গির্জার মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ কন্ট্রোল অফিসের ঠিক পাশে রয়েছে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার ‘বর্ণপরিচয় বাস টারমিনাস’। এই বাস স্টপেজ থেকে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় বাস যায়। এখান থেকে প্রথম বাস ছাড়ে সকাল ৫ টা ৩০ মিনিটে পুরুলিয়ার উদ্দেশ্যে ও শেষ বাস দুপুর ৩ টা ৫০ মিনিটে কামারপুকুরের উদ্দেশ্যে। এই বর্ণপরিচয় থেকে সারাদিনে মোট ২৭ টি বাস ছাড়ে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গার উদ্দেশ্যে।
নীচের তালিকায় সেই বাসগুলির সময় ও গন্তব্যস্থান উল্লেখ করা হল :

দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার বাসস্ট্যান্ডের ঠিক পাশেই রয়েছে দুটি বেসরকারী বাস স্ট্যান্ড। একটি থেকে ছাড়ে গাঁতলা, শেরপুর ও অনন্তপুরের বাস। যার ভাড়া যথাক্রমে ৩০ টাকা, ৪০ টাকা ও ২৮ টাকা। ২৫ মিনিট থেকে ৪০ মিনিট অন্তর এই রুটের বাসগুলি সকাল ৭ টা থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত। সন্ধ্যা ৬ টা ৪০ মিনিটে এখান থেকে শেষ বাস ছাড়ে। এর ঠিক উল্টো দিকেই ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ওপারে রয়েছে আরও একটি বেসরকারী বাস স্ট্যান্ড। এখান থেকে ছাড়ে রামনগর ঘাটের বাস (ভায়া সাটুই, চৌরিগাছা, বাজার শো, শক্তিপুর)। সকাল ৬ টা থেকে ৭ টা ৩০ মিনিট অব্দি, ৩০ মিনিট অন্তর এই বাস গুলি চলে। যার সর্বনিম্ন ভাড়া ১০ টাকা (আঁধারমানিক স্টপেজ পর্যন্ত) আর সর্বোচ্চ ভাড়া ৫০ টাকা (রামনগর ঘাট পর্যন্ত)।
বহরমপুরের ‘মোহনা বাস স্ট্যান্ড’ হল শহরের সবচেয়ে জনবহুল এলাকা। এখান থেকে ছাড়ে বিভিন্ন রুটের বাস। রয়েছে ছোট ছোট একাধিক টিকিট কাউন্টার। কোনও টিকিট কাউন্টার থেকে পাওয়া যায় বহরমপুর থেকে পলাশীপাড়া, তেহট্ট ও কৃষ্ণনগর পর্যন্ত রুটের বাসের টিকিট। এই বাসগুলি বেতাই, করিমপুর, দেবগ্রাম, তেহট্ট ঘাট হয়ে কৃষ্ণনগর যায়। এই রুটের বাসের সর্ব নিম্নভাড়া ৫৫ টাকা ও সর্বোচ্চ ভাড়া ৮৫ টাকা।
পাশের টিকিট কাউন্টার থেকে পাওয়া যায় বহরমপুর থেকে রাধানগরঘাটের (ভায়া হরিহরপারা) বাসের টিকিট। টিকিট কাউন্টারের ঠিক পাশ থেকেই ছাড়ে এই বেসরকারী বাসগুলি। আমতলা, পাটিকাবাড়ি, নাজিরপুর, গঙ্গাধারী, গোয়াস, ঢোড়াদহ এলাকার বাসগুলি এই টিকিট কাউন্টারের পাশ থেকে রওনা দেয়।
পিছনের দিকের টিকিট কাউন্টার থেকে পাওয়া যায় বক্সিপুর, ডোমকল, জলঙ্গী রুটের বাস। বেসরকারী বাসে বহরমপুর থেকে জলঙ্গী পর্যন্ত ভাড়া ৬০ টাকা। মোহনা বাস স্ট্যান্ড থেকে এই সব রুটের বাসই সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পরিষেবা দেয়। তারপর এই রুটে যাত্রা করতে হলে অটো কিংবা ট্রেকার বা প্রাইভেট গাড়িই ভরসা।

মোহনা বাসস্ট্যান্ড থেকে বহরমপুর থানার দিকে এগিয়ে গেলে পড়বে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা বহরমপুর ডিপো। এখান থেকে দিনভর প্রায় ২৬ টি বাস বিভিন্ন গন্তব্যে যায়। এই বাস ডিপো থেকে প্রথম বাস ছাড়ে ভোর ৫ টাই, খড়গপুরের উদেশ্যে। আর শেষ বাস ছাড়ে সন্ধ্যা ৬ টা ৩০ মিনিটে, কোচবিহারের উদ্দেশ্যে। এছাড়াও ধুপগুড়ি, মালবাজার, শিলিগুড়ি, রায়গঞ্জ, বালুরঘাট উত্তরবঙ্গের এই জায়গাগুলিতেও বাস যায়।
নীচে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা বহরমপুর ডিপোর বাসগুলির সময় ও গন্তব্যস্থান উল্লেখ করা হল :

*এই তথ্যগুলি ২রা নভেম্বর ২০২২ এর রিপোর্ট অনুযায়ী