ফারাক্কায় তৃণমূল অফিসে ধুন্ধুমার ! মাথা ফাটল প্রধানের স্বামীর

মিলন সরকারঃ ফারাক্কাঃ ফের তৃণমূলের কোন্দলে উত্তপ্ত ফরাক্কা, প্রধানের স্বামীকে মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতির বিরুদ্ধে। তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল মুর্শিদাবাদের ফরাক্কা। পার্টি অফিসের মাথা ফাটলো তৃণমূল পরিচালিত ফরাক্কার নয়নসুখ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের স্বামী হৃদয় মন্ডলের। ভাঙচুর করা হয় পার্টি অফিসের বিভিন্ন সামগ্রী। অভিযোগের তীর উঠেছে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতির বিরুদ্ধে। রবিবার ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে নিউ ফরাক্কা তৃণমূল কার্যালয়ে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে ফরাক্কা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। উল্লেখ্য শুক্রবার ফরাক্কার নয়নসুখ পঞ্চায়েত ভবনে মিটিং চলাকালীন পঞ্চায়েত সদস্যদের উপস্থিতিতে তাঁকে মারধর করার অভিযোগ করেন প্রধানের স্বামী হৃদয় মন্ডল। অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি ইমরান আলীর বিরুদ্ধে । রবিবার এই ঘটনার সালিশ করার জন্য নিউ ফরাক্কা তৃণমূল অফিসে ডেকে পাঠানো হয় দু পক্ষকেই । অভিযোগ, তারপরে তৃণমূল কংগ্রেসের নয়নসুখ অঞ্চলের সভাপতি ও প্রধান গোষ্ঠীর মধ্যে শুরু হয় বচসা। উত্তপ্ত হয়ে উঠে পরিস্থিতি। মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় তৃণমূল প্রধানের স্বামীর। ভাঙচুর করা হয় পার্টি অফিসের বিভিন্ন সামগ্রী। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে ফরাক্কা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। এই ঘটনায় অঞ্চল সভাপতির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করতে থাকায় গেলে প্রধানের স্বামীর অনুগামীদের আটকে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ।

গুরুতর আহত অবস্থায় হৃদয় মন্ডলকে প্রথমে বেনিয়াগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে মালদায় স্থানান্তরিত করা হয়। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত অঞ্চল সভাপতি। তৃণমূল ফারাক্কা ব্লক সভাপতি অরুণময় দায় কার্যত দুই গোষ্ঠীর কোন্দলের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। তিনি জানান, সমস্যা মেটাতে দুই পক্ষকে ডাকা হয়েছিল। অঞ্চল সভাপতিকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্লক তৃনমূল কংগ্রেস।