ফরওয়ার্ড ব্লক, তৃণমূল থেকে কংগ্রেসে যোগদান ! অধীরের সমাবেশে টার্গেটে পঞ্চায়েত !

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ  মুর্শিদাবাদে পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করে দিল কংগ্রেস। সংগঠন চাঙ্গা করতে দ্রব্যমূল্য, বেকারত্ব, দুর্নীতির প্রতিবাদে বহরমপুরে জনসভা ডেকেছিল  কংগ্রেস । বৃহস্পতিবার দুপুরে টেক্সটাইল কলেজ মোড়ে কংগ্রেসের জনসভা মঞ্চে হাজির ছিলেন  একঝাঁক প্রবীণ, নবীন নেতৃত্ব। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ও বহরমপুরের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরীর সাথেই উপস্থিত ছিলেন তামিলনাড়ুর সাংসদ তথা বঙ্গ কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক চেল্লা কুমার, রাজ্যের প্রাক্তন ত্রাণমন্ত্রী, প্রাক্তন ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা  হাফিজ আলম সৈরানি, সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী সহ প্রাক্তন বিধায়ক, প্রাক্তন সাংসদ ও জেলার কংগ্রেস নেতা, কর্মীরা । এদিন সভা মঞ্চ থেকেই কংগ্রেস নেতৃত্বের হাত ধরে কংগ্রেসের পতাকা ধরলেন জেলার বিভিন্ন প্রান্তের তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা । পঞ্চায়েত ভোটের আগে যোগদান ঘিরে আশাবাদী কংগ্রেস।

সভা মঞ্চেই এদিন কংগ্রেসের হয়ে ভাষণ   দিতে দেখা গেল ফরওয়ার্ড ব্লকের তিনবারের বিধায়ক আলী ইমরান রামজ  ওরফে ভিক্টরকে । গোয়ালপোখর এবং চাকুলিয়ার প্রাক্তন ফরওয়ার্ড ব্লক বিধায়ক ছিলেন তিনি।

এদিন কংগ্রেসের সভা থেকে  তৃণমূলকে তীব্র ভাষায়  কটাক্ষ করেন অধীর । তিনি বলেন, মুর্শিদাবাদের মানুষ যারা বরাবর কংগ্রেস কে সহযোগিতা করে সমর্থন করে, সেই মুর্শিদাবাদের মানুষের কংগ্রেসের প্রতি যে আস্থা বিশ্বাস সেটাকে ধংস করার জন্য তৃণমূল নেতৃত্ব এখানকার প্রশাসন পুলিশ সবাইকে ব্যবহার করে দিনের পর দিন আক্রমন করে তাকে দুর্বল করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু এই আক্রমন চিরস্থায়ী হতে পারেনা ।   কংগ্রেস দলে যোগদান অত্যন্ত তাৎপর্য পূর্ণ। যুব সমাজের তৃণমূলের প্রতি যে মোহভঙ্গ হচ্ছে এটা তাঁর জলন্ত উদাহরণ।

এদিন মঞ্চ থেকে কংগ্রেসে যোগ দেন রানিনগরের প্রাক্তন তৃণমূল নেতা আমিনুল হাসান বাপি। এছাড়াও কংগ্রেস নেতৃত্বের দাবী, সুতি, নওদা, বড়ঞা থেকে বহু কর্মী কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন।

 

যদিও কংগ্রেসের সমাবেশ এবং যোগদান কর্মসূচি ঘিরে পাল্টা কটাক্ষ করতে ছাড়েনি তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রের নেতা অশোক দাসের দাবী,  তৃণমূল থেকে কেউ যোগদান করেনি। সভায় ছিল বিজেপি সিপিআইএমের লোকজন , দাবি তৃণমূল নেতার। কংগ্রেসের গ্রহণযোগ্যতা নিয়েও পাল্টা সমালোচনার তীর ছুঁড়েছেন তিনি।