পঞ্চায়েতে কর্মচারীকে পিটিয়ে বিপাকে তৃণমূল কর্মাধ্যক্ষের স্বামী, দেওর

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ ভগবানগোলা ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির আখেরীগঞ্জ গ্রাম পঞ্চায়েতের এক্সিকিউটিভ অ্যাসিস্টেন্ড মহম্মদ রাইহান আলী ও গ্রামপঞ্চায়েত কর্মী তোজাম্মেল হকের উপর প্রকাশ্যে আক্রমনের ঘটনায় ভগবানগোলা ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ তুহিনা বিবির দেওর ফিরোজ হোসেনকে সোমবারই  গ্রেপ্তার করেছে  রানীতলা থানার পুলিশ । মঙ্গলবার  অভিযুক্ত ফিরোজকে লালবাগ মহকুমা আদালতে তোলা হলে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক । এই ঘটনায় অন্য দুই অভিযুক্ত খাদ্য কর্মাধ্যক্ষের স্বামী সোহেল রানা ও শ্বশুর জাহাঙ্গীর হোসেন পলাতক রয়েছেন ।

মঙ্গলবার আখেরীগঞ্জের গ্রাম পঞ্চায়েত কর্মী তোজাম্মেল হকের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে হাসপাতাল সুত্রে জানা গিয়েছে তার সিটিস্ক্যান করা হয়েছে।

 

ঘটনায় চরম ক্ষুদ্ধ প্রশাসনিক আধিকারিকেরা থেকে পঞ্চায়েত কর্মীরা। ভগবানগোলা ২ ব্লকের বিডিও মহম্মদ ওয়াসিদ খান জানান, ঘটনা জানার পরেই রানিতলা থানায় পঞ্চায়েতের প্রধানের পক্ষ থেকে অভিযোগ জানানো হয়েছে।  পুলিশ নিরপেক্ষ ভাবে তদন্ত করছে। প্রশাসনের ভূমিকায় খুশি কর্মচারীরা।

গোটা ঘটনায় অস্বস্তিতে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব থেকে কর্মাধ্যক্ষ নিজেই। কার্যত ভগবানগোলার বিধায়ক ইদ্রিশ আলিও  প্রশাসনের তদন্তের উপরেই আস্থা রাখছেন। পঞ্চায়েত ভোটের আগে ভগবানগোলা ২ নম্বর ব্লকে এই ঘটনা জেলা জুড়ে পঞ্চায়েত কর্মী আধিকারিকদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কায় জেলা তৃণমূল নেতৃত্বে কার্যত কূলরাখি না শ্যামরাখি অবস্থা বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।