নথি উধাও ডি আই অফিসে! সিআইডি’র র‍্যাডারে এল ডিআই অফিসের ফাইল

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ একটানা পাঁচ ঘণ্টা ধরে বহরমপুর জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের অফিসে সিআইডি আধিকারিকরা দশজনকে জেরা করলেন সুতির গোঠা হাইস্কুলের শিক্ষক অনিমেষ তিওয়ারির নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে। সিআইডির ডিএসপি শিমূল সরকারের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি সিআইডি টিম বর্তমান ডিআই অমর কুমার শীল ও প্রাক্তন ডিআই পুরবী দে বিশ্বাসের উপস্থিতিতে ওই স্কুলের পরিচালন সমিতির প্রাক্তন ও বর্তমান সভাপতি ,সদস্য ও স্কুলের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষকদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। যদিও স্কুলের প্রধান শিক্ষক বা তার ছেলেকে তলব করা হলেও তারা আসেননি। সিআইডি সূত্রে জানা গিয়েছে এখনও কিছু নথি তারা পাচ্ছেন না যা এই মামলায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন, সেটার খোজেও সিআইডি তদন্ত জারি থাকবে।

উল্লেখ্য সুতির গোঠা এ আর হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আশীষ তিওয়ারির বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল ডকুমেন্ট জালিয়াতি করে ছেলে অনিমেষ তিওয়ারিকে নিজের স্কুলেই শিক্ষকতার সুযোগ করে দিয়েছেন। সেই ঘটনায় সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। গত ১৯শে জানুয়ারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নামে সুতি থানায় দায়ের হয়েছে এফআইআর। এফআইআর করা হয়েছে স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও তাঁর ছেলের নামে। গত ২১শে জানুয়ারি এই দুর্নীতির তদন্তে বহরমপুরে ডিআই অফিসে এসেছিলেন এসএস সিআইডি, স্পেশাল ক্রাইম অনীশ সরকার। সেদিনই জিজ্ঞাসাদ করা হয় বর্তমান ডিআই ও প্রাক্তন ডিআই ও স্কুল পরিচালন সমিতির সভাপতিকেও। গত ৩০শে জানুয়ারী দুর্নীতির তদন্তে সুতির গোঠা এ আর হাইস্কুলে গিয়েছিল সিআইডি দল। এরপরের দিনই বহরমপুরে ডিআই অফিসে আসেন চার সদস্যের সিআইডি দল।
নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে ফের ডিআই অফিসে সিআইডির টিম।