নওদায় তৃণমূল অফিসের বাইরে ভাঙচুর , পুড়ল চেয়ার; ব্লক সভাপতির বিরুদ্ধে ক্ষোভ

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ মঙ্গলবার  বিজয়া সম্মিলনীতে  ঐক্যের সুর বেঁধেছিলেন মুর্শিদাবাদের  তৃণমূলের নেতারা । চব্বিশ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই হল ছন্দ পতন । নওদায় সুর কাটল ঐক্যের। সামনে এল ফাটল ।  বুধবার দুপুরে নওদায়   তৃণমূল কংগ্রেস অফিসের বাইরে বিক্ষোভ দেখালেন দলের নেতারাই। নওদায় প্রকাশ্যে এল  তৃণমূলের গৌষ্ঠী কোন্দল ।  অফিসের বাইরে  পুড়ল চেয়ার ।  ব্লক সভাপতিকে অপসারণের  দাবিতে ব্লক তৃণমূল কার্যালয়ে ভাঙচুরের পাশাপাশি আসবাবপত্রে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ উঠল  বিধায়ক অনুগামীদের বিরুদ্ধে।

নওদা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সফিউজ্জামানের অপসারণ চেয়ে বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য আমিরুল ইসলাম, তৃণমূল নেতা আক্কাস আলি সহ বিভিন্ন পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিরা। বিক্ষুব্ধরা সকলেই নওদার বিধায়ক সাহিনা মমতাজের অনুগামী।

তৃণমূল নেতা লাল্টু দাসের অভিযোগ, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে কাজ করেছিলেন নওদা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের বর্তমান  সভাপতি সফিউজ্জামান । তিনি দলের দায়িত্ব পেয়ে তৃণমূল কংগ্রেস  বিরোধীদের নিয়ে  চলাফেরা করছেন। তাদের নেতার  চেয়ারে বসিয়েছেন। সম্প্রতি জেলার নির্দেশকে উপেক্ষা করে ব্লক কমিটি ঘোষণা করেছেন বলেও দাবি করেন বিক্ষুব্ধ নেতারা । অভিযোগ, নতুন ব্লক কমিটিতে   রাখা হয়নি বিধায়ক সাহিনা মমতাজ খানের ঘনিষ্ঠ কাউকে।

যদিও সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন নওদা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সফিউজ্জামান ওরফে হাবিব মাস্টার। তার দাবি, ওই অফিস তৃণমূলেরই নয়। মোশারফ হোসেন মধু ওই অফিস তৈরী করেছেন। তার অনুগামীরাই সেখানে বসেন। বিধায়িকা সাহিনা মমতাজও ওই অফিসে যাতায়াত করেন বলে কটাক্ষ করেছেন নওদা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সফিউজ্জামান।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন যতো ঘনিয়ে আসছে,  সাহিনা মমতাজ বনাব  সফিউজ্জামান দ্বন্দ্ব ততো বাড়ছে। মঙ্গলবার নওদা গোঘাটা চাঁদপুরের এক সমবায় ব্যাঙ্কের পরিচালন কমিটির নির্বাচনেও ব্লক সভাপতি নিজের লোকেদের মনোনয়ন জমা করিয়েছেন বলে অভিযোগ বিধায়ক অনুগামীদের । কিছুদিনের মধ্যেই নওদাতেও বিজয়া সম্মেলন করবে তৃণমূল কংগ্রেস। সেদিন কারা থাকবেন টা নিয়েও উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন।