দাম কমছে মোবাইলের, খুশি ছাত্রছাত্রীরা

ভারতে দাম কমতে চলেছে মোবাইল ফোনের । মঙ্গলবার বাজেট পেশ পেশ করেন নির্মল সীতারমন। এক নজরে বাজেটে চোখ বোলাতে দেখা যাচ্ছে, কমতে পারে মোবাইলের দাম। মোবাইলের দাম কমার সম্ভাবনা তৈরী হওয়ায় খুশি ছাত্রছাত্রীরা। দাম কমতে চলেছে মোবাইলের চার্জারেরও। ক্ষেত্র-ভিত্তিক প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে যে ওয়্যারেবল ডিভাইস, শ্রবণ যন্ত্র এবং ইলেক্ট্রনিক স্মার্ট মিটার প্রভৃতি উৎপাদনে উৎসাহ দিতে পর্যায়ক্রমে সীমাশুল্ক হার সংশোধন করা হবে। মোবাইল ফোন চার্জারের ট্রান্সফর্মারের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ এবং মোবাইল ক্যামেরার লেন্স ও নির্দিষ্ট কয়েকটি সামগ্রীর দেশীয় উৎপাদন বাড়াতে সীমাশুল্কে ছাড় দেওয়ার প্রস্তাব রয়েছে এবারের বাজেটে ।

অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করেন, আপৎকালীন ঋণ নিশ্চয়তা প্রকল্পের সময়সীমা ২০২৩-এর মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হলো। এই প্রকল্পে গ্যারান্টি বাবদ অর্থের পরিমাণ ৫০ হাজার কোটি টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। এরফলে বর্তমানে প্রকল্পটির মোট বরাদ্দ ৫ লক্ষ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় অর্থ ও কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রী শ্রীমতী নির্মলা সীতারমন আজ সংসদে ২০২২-২৩ অর্থবর্ষের কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করার সময় এই ঘোষণাটি করেন। অতিরিক্ত অর্থ আতিথেয়তা ও সংশ্লিষ্ট উদ্যোগের জন্য বরাদ্দ করা হবে।

মন্ত্রী জানান, প্রকল্পটি ১৩০ লক্ষের বেশি অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগী সংস্থার পক্ষে সহায়ক হবে। মহামারীর ফলে এই শিল্পোদ্যোগগুলি সংকটের মুখোমুখি। অর্থমন্ত্রীর এই প্রস্তাবের ফলে মাঝারি ও ক্ষুদ্র শিল্পোদ্যোগীরা উপকৃত হবেন।
মন্ত্রী ৫ বছরের মেয়াদে অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ সংস্থাগুলির উৎসাহদানের জন্য ৬ হাজার কোটি টাকার একটি প্রকল্প ঘোষণা করেছেন। এরফলে সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রের সংস্থাগুলি আরও দক্ষ হয়ে পরিষেবা দেবে।
অর্থমন্ত্রী উদ্যম, ই-শ্রম, এনসিএস এবং এএসইইএম পোর্টালের সংযুক্তিকরণের প্রস্তাব দিয়েছেন। সংযুক্তিকরণের ফলে বিভিন্ন সংস্থার মূলধন যোগানো সুবিধা হবে এবং নতুন নতুন শিল্প গড়ার কাজে উৎসাহের সঞ্চার হবে। অর্থমন্ত্রী বাজেটে ছাতার ওপর রাজস্বের পরিমাণ ২০ শতাংশ বৃদ্ধি করেন। এছাড়াও কৃষিক্ষেত্রে ব্যবহৃত সরঞ্জাম, যেগুলি ভারতে তৈরি হয়, সেগুলির ওপর বিশেষ ছাড়ের কথা ঘোষণা করেন। অতিক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগী সংস্থাগুলির সুবিধার জন্য ইস্পাতের ছাঁটের ওপর সীমাশুল্কে যে বিশেষ সুবিধা দেওয়া হয়েছিল তা অব্যাহত থাকবে। এই ক্ষেত্রে যারা ইস্পাতের সামগ্রী তৈরি করেন তারা উপকৃত হবেন। কিছু কিছু স্টেইনলেস স্টিলের সামগ্রীর ওপর যে অ্যান্টি ডাম্পিং ও সিভিডি ধার্য করা ছিল তা প্রত্যাহার করা হয়েছে। ধাতব সামগ্রীর উচ্চমূল্যের কারণে ক্রেতারা যে সমস্যার সম্মুখীন হতেন সেই সমস্যা থেকে তাঁরা মুক্ত হবেন।