ছবিতেই উঠে এল প্রতিবাদ । বহরমপুরে প্যাপিলিও পেন্টার্সের বসে আঁকো

বেদান্ত চট্টোপাধ্যায়ঃ  রবিবার বহরমপুরে প্যাপিলিও পেন্টার্সের আয়োজনে বহরমপুর শক্তিমন্দির ক্লাবের মাঠে অনুষ্ঠিত হচ্ছিল  বসে আঁকো প্রতিযোগিতা।  আয়োজকদের কথায় প্রায় শতাধিক শিল্পী এই প্রতিযোগিতায়  অংশগ্রহণ করে। এরই মাঝে বড়দের বিভাগে প্রতিযোগী   হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন আকাশ সাহা। আকাশের ছবির মূল বিষয় ছিলো, সমাজে নারীদের ওপর অত্যাচার ও শিশু কন্যাদের উপর ধর্ষণের প্রতিবাদ।

একটা ছবি বদলে ফেলতে পারে অনেক কিছু। আনতে পারে বিপ্লব, জাগাতে পারে চেতনা, বোধ , একথা বোধ করি সকল চিত্রশিল্পীর মনের কথা। এমন কথাই ছবিতে বলতে চেয়েছে আকাশ। সমাজে  মেয়েদের উপরে যে অত্যাচারের ঘটনা বারংবার সামনে আসছে তারই প্রতিবাদ ছবিতে তুলে ধরেছেন শিল্পী। আকাশ ইসলামপুরের আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের বিএ সেকেন্ড ইয়ারের ভূগোলের ছাত্র। ছবি আঁকার হাতে খড়ি শিল্পী মহাপ্রভু গনাইয়ের হাতে। ইচ্ছে আছে আর্ট নিয়ে পড়াশোনা করার তবে অনেক সময় ইচ্ছে থাকলে উপায় হয় না বলছেন প্রতিযোগী শিল্পী আকাশ।

জলরং ও চারকোলের মাধ্যমে আকাশের তৈরি ছবি দেখতে অনেকেই আগ্রহ বোধ করছিলেন প্রতিযোগিতার মাঠেই। প্রতিযোগিতার ফল এখনো প্রকাশ হয়নি। তবে আকাশের মূল লক্ষ্য প্রতিযোগিতা নয়, ছবির মাধ্যমে সমাজের বিভিন্ন বিষয়কে ফুটিয়ে তোলা ওর স্বপ্ন। এদিনের প্রতিযোগিতায় আকাশের পাশেই আরো এক প্রতিযোগী সুদীপ্তা আঁক ছিলেন একটি মেয়ের বৈধব্য জীবনের কাহিনী। আবার কেউ আসছিল পরিবেশ দূষণ, আবার কেউ পেন্সিল দিয়ে ফুটিয়ে তুলেছিলেন হুবুহু কারও মুখ।

আগামী ১০ই ফেব্রুয়ারি থেকে বহরমপুর শক্তি মন্দিরের মাঠেই শুরু হচ্ছে প্যাপিলিও পেন্টার্সের আয়োজনে ইন্টারন্যাশনাল আর্ট ফেয়ার। ঘোষণা করা হবে আজকের বসে আঁকো প্রতিযোগিতার ফলাফল। ভারতবর্ষ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে শিল্পীরা তাঁদের হাতে আঁকা ছবি বা স্কাল্পচার নিয়ে অংশ নেবেন এই আর্ট ফেয়ারে। ভবিষ্যতের শিল্পীদের উৎসাহ দিতেই পাপলিও পেন্টার্সের এই বসে আঁকো প্রতিযোগিতার আয়োজন। সংস্থার সভাপতি কার্তিক পাল জানান,“ আজকে যারা এই প্রতিযোগিতায় আছে, কালকে তারাই দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রদর্শনীতে অংশ নেবেন। ”

এদিনের প্রতিযোগিতায় কোন বিষয়ের মাপকাঠি ছিল না।। প্রতিযোগিতা হয় চারটি বিভাগে । চারটি বিভাগেই শিল্পীরা যেমন খুশি তেমন আঁকার সুবিধা পেয়েছিলেন। আয়োজকদের উদ্দেশ্য একটাই শিল্পীরা তাদের মনের ভাবনা, বিপ্লব, শৈল্পিকতা ছবিতে ফুটিয়ে তুলুক।