এক হাজার চোর ! জঙ্গিপুরে কী বললেন ফিরহাদ ?

নিজস্ব সংবাদদাতা, জঙ্গিপুরঃ  জাকির হোসেনের পর  ফিরহাদ হাকিম। চোর নিয়ে চর্চা জঙ্গিপুরে সরকারি সভায়। শনিবার জঙ্গিপুরে জলপ্রকল্প উদ্বোধন করতে এসেছিলেন  ফিরহাদ। সেই সভাতেই জঙ্গিপুরের বিধায়ক জাকির হোসেনের বক্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে বিতর্ক। এবার সেই চোর নিয়ে মন্তব্য করলেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রীও। যা নিয়ে বিরোধীরা কটাক্ষ করতে ছাড়ছেন না।

 

এদিনের সভায় ফিরহাদের দাবি, তৃণমূলে চোরের সংখ্যা সামান্য, সেটাকেই বাড়িয়ে দেখাচ্ছে সংবাদ মাধ্যম। ফিরহাদ হাকিম বলেন, “এক কোটির পার্টিতে ১০ টা, ২০ টা,  খুব বেশি হলে  এক হাজার বড়জোর চোর চামার আছে। নিশ্চিত আছে। এক কোটিতে এক হাজার অর্থাৎ পয়েন্ট জিরো জিরো ওয়ান পার্সেন্ট চোর চামার আছে । এর থেকে বেশি তৃণমূল কংগ্রেসে নেই। সেইটাকে টিভিতে এমন করে দেখানো হচ্ছে যেন সারা বাংলা চোর চামারে ভরে গিয়েছে”।

এদিন ফিরহাদের আগে মঞ্চ থেকে দলীয়  নেতাকর্মীদের একাংশকেই কাঠগড়ায় তোলেন  জাকির হোসেন । জাকির হোসেনের দাবি, ” আজকে আমাদের প্রধানরা  চুরি করছে তার দায় আমাদের দলের দিদিকে নিতে হচ্ছে এই ভাবনা আমাদের ভাঙাতে হবে”। দুর্নীতিগ্রস্থদের   বিরুদ্ধে দলের  জেলা সভাপতিকে ব্যবস্থা নিতে হবে বলেও দাবি করেন  জাকির হোসেন। সভায় জাকির হোসেন বলেন, “কোন কাউন্সিলর খারাপ কাজ করলে আপনারা আমাকে কমল্পেন করবেন,  আমি দাদার কাছে কমল্পেন করব, জেলা সভাপতির কাছে কমল্পেন করব । আমি দাদাকে বলব যে বিধানসভাতে যে সব অফিসার , প্রধানদের বিরুদ্ধে কমপ্লেন হয়ে আছে সেই সব অফিসার এবং প্রধানরা ধরা পড়ুক। নাহলে আমাদের দল স্বচ্ছতা  আসবে না” ।

জঙ্গিপুর পৌরসভায় জল প্রকল্পের উদ্বোধনে এসে বিরোধীদের একযোগে আক্রমন এর পাশাপাশি সংবাদ মাধ্যমের প্রতি এক রাশ ক্ষোভ প্রকাশ করলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। শনিবার জঙ্গিপুরে পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম প্রথমে তিনি রবীন্দ্রভবনে সাংসদ বিধায়ক ও পৌরসভার চেয়ারম্যানকে সাথে নিয়ে পৌরসভার বিশুদ্ধ পানীয় জল প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। সেখানে বিরোধী দল সিপিএম কংগ্রেস বিজেপি কে একযোগে আক্রমন করেন ফিরহাদ । এরপর সেখান থেকে তিনি যান জঙ্গিপুর পৌরসভায়। সেখানে গিয়ে চেয়ারম্যান ও অন্যান্য আধিকারিকদের সাথে কথা বলেন। মন্ত্রী জানান জঙ্গিপুর পৌরসভা মানুষের পরিষেবায় কাজ করে চলেছে।