আজও আদলতে চিকিৎসকরা। CMOH নিগ্রহ মামলায় জামিন খারিজ ২ অভিযুক্তের

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ জামিন খারিজ হল CMOH নিগ্রহ মামলায় জেলবন্দী দুই অভিযুক্তের।   মুর্শিদাবাদের জেলা মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিককে নিগ্রহের মামলার দেড় মাস পার হয়ে গেল। অধিকাংশ অভিযুক্ত ছাড়া পেলেও, এখনো ২   অভিযুক্তরা জেল হেফাজতে রয়েছেন  । দফায় দফায় শুনানি চলছে । আজ শুনানির সময়ে ইন্ডিয়ান মেডিকেল এসোসিয়েশন এর বহরমপুর শাখার পক্ষ থেকে আদালত চত্বরে উপস্থিত ছিলেন ডাঃ অনির্বাণ দত্ত, ডাঃ রঞ্জন ভট্টাচার্য্য, ডাঃ অমরেন্দ্র নাথ রায় সহ শহরের অন্যান্য চিকিৎসকেরা। চিকিৎসকদের উষ্মা,  দোষীরা পাচ্ছে না কোনও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি। জেলার প্রধান স্বাস্থ্য আধিকারিককে নিগ্রহের ঘটনায় উদ্বিগ্ন  চিকিৎসক মহল। স্থগিত শুনানি আবারও জেল হেফাজতেই ২ অভিযুক্ত।

মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক  ডাঃ অনির্বাণ দত্ত বলেন, অপরাধীরা শাস্তি না পাওয়ায়  মনোবল ভাঙছে জেলার ডাক্তারদের। সিএমওএইচ’কে নিগ্রহের ঘটনায় আইনি পথে লড়াই চলবে।

গত ১৩ এর অক্টোবর বহরমপুরে জেলা মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিকের দপ্তরেই তাঁর ওপর শারীরিক নিগ্রহের ঘটনায় শহরে জুড়ে তুলকালাম পরিস্থিতি তৈরি হয়। জেলা পরিষদ সভাধিপতি ও হরিহরপাড়ার বিধায়কের সামনেই ক্ষুব্ধ জনতার হাতে আক্রান্ত হন খোদ মুর্শিদাবাদ জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সন্দীপ সান্যাল।
জেলার স্বাস্থ্য কর্তার নিগ্রহের ঘটনায় চারিদিকে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। এই ঘটনার তদন্তে নেমে ১৬ জনকে গ্রেফতার করে বহরমপুর থানার পুলিশ। ২৯ শে অক্টোবর ধৃত ১৬ জনের মধ্যে ১৪ জনকেই শর্তসাপেক্ষে জামিন দেওয়া হয়। মূল দুজন অভিযুক্ত ওয়াদি শেখ ও একমান শেখ এর জামিন খারিজ করে জেলা আদালত। গত ১১ই নভেম্বর এই দুজনকে ফের কোর্টে তোলা হয় বিচারক তাঁদের আরও ১৪ দিনের জেল হেফাজতের  নির্দেশ দেন।  আইনজীবি শুভাঞ্জন সেনগুপ্ত জানান,   আজকের শুনানিতেও অভিযুক্তদের বেল খারিজ করে পুনরায় জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। শুনানির পরবর্তী তারিখ যদিও জানা নি।