অবশেষে বহিষ্কার জঙ্গিপুর, ধূলিয়ানেও TMC expels rebels

নির্দল কাঁটা তুলতে মরিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস।   দলের একঝাঁক নেতাদের অনেকেই পৌরসভা ভোটে দাঁড়িয়েছেন নির্দল সদস্য হিসেবে। অনেক নেতার পরিবারের সদস্যরা নেতার যায়গায় দাঁড়িয়েছেন ভোটে। ভোটের সাত দিন আগে এবার সেই নেতাদের বহিষ্কার করল তৃণমূল কংগ্রেসের জঙ্গিপুর সাংগঠনিক জেলার নেতৃত্ব। তৃণমূল কংগ্রেসের জঙ্গিপুর সাংগঠনিক জেলার চেয়ারম্যান কানাই মণ্ডল ও সভাপতি খলিলুর রহমান  রবিবার সাংবাদিক সম্মেলন করে জানালেন, বহিষ্কার করা হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসের রঘুনাথগঞ্জ টাউন সভাপতি , দুই প্রার্থী , ধূলিয়ান পৌরসভার একঝাঁক নির্দল প্রার্থীকে।

ধূলিয়ান পৌরসভায় প্রায়  ১৪   জনকে বহিষ্কারের পথে হেঁটেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল কংগ্রেস  ৮  প্রার্থীকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে। ৬ প্রার্থীর স্বামীকেও বহিষ্কার করেছে দল।  ধূলিয়ান পৌরসভার ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল নেতা তৌসিফ আহমেদকেও বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কার করা হয়েছ মাজাহার হোসেন, সোমা সরকার, মহম্মদ খাইরুল ইসলাম, নূর চসম খানম, ফারহানা খাতুন, আমিরুল হক, মহম্মদ মইদুল হক বুলেট, প্রাক্তন কাউন্সিলার  হাবিবুর রহমান, হাবিবুর রহমানের  স্ত্রী আখতারাকে।

জঙ্গিপুর পৌরসভার দুটি ওয়ার্ডের দুই প্রার্থী  সান্তা সিংহ, অঞ্জলি সরকার  ও রঘুনাথগঞ্জ টাউন তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি শত্রুঘ্ন সরকারকে  কে বহিষ্কার  করা হয়েছে। ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার ছিলেন সান্তা সিংহ, এবার তিনি নির্দল হয়ে ভোটে লড়ছেন।

কানাই মণ্ডল জানান, অনির্দিষ্টকালের জন্য বহিষ্কার করা হল এই প্রার্থী, নেতাদের। দলের কেউ কোন যোগাযোগ রাখবেন না ।