অধীরকে টেক্কা দিতে একদিনেই তৃণমূলে সাড়ে চার হাজার কংগ্রেস, সিপিএম, বিজেপি কর্মী !

মধ্যবঙ্গ নিউজ ডেস্কঃ অধীরের সভার দিনেই বহরমপুর  মুর্শিদাবাদ সাংগঠনিক জেলায় একইদিনে ব্লকে ব্লকে যোগদান কর্মসূচি করল তৃণমূল। তৃণমূল কংগ্রেসের বহরমপুর মুর্শিদাবাদ সাংগঠনিক জেলার সভানেত্রী শাওনি সিংহ রায়ের দাবী, এই জেলায় প্রায় সাড়ে চার হাজারেরও বেশি  কর্মী কংগ্রেস, বিজেপি, সিপিএম থেকে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

মুর্শিদাবাদে পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করে দিল কংগ্রেস। সংগঠন চাঙ্গা করতে দ্রব্যমূল্য, বেকারত্ব, দুর্নীতির প্রতিবাদে বহরমপুরে জনসভা ডেকেছিল  কংগ্রেস । বৃহস্পতিবার দুপুরে টেক্সটাইল কলেজ মোড়ে কংগ্রেসের জনসভা মঞ্চে হাজির ছিলেন  একঝাঁক প্রবীণ, নবীন নেতৃত্ব। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ও বহরমপুরের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরীর সাথেই উপস্থিত ছিলেন তামিলনাড়ুর সাংসদ তথা বঙ্গ কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক চেল্লা কুমার, রাজ্যের প্রাক্তন ত্রাণমন্ত্রী, প্রাক্তন ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা  হাফিজ আলম সৈরানি, সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী সহ প্রাক্তন বিধায়ক, প্রাক্তন সাংসদ ও জেলার কংগ্রেস নেতা, কর্মীরা । এদিন সভা মঞ্চ থেকেই কংগ্রেস নেতৃত্বের হাত ধরে কংগ্রেসের পতাকা ধরলেন জেলার বিভিন্ন প্রান্তের তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা । পঞ্চায়েত ভোটের আগে যোগদান ঘিরে আশাবাদী কংগ্রেস। এদিন মঞ্চ থেকে কংগ্রেসে যোগ দেন রানিনগরের প্রাক্তন তৃণমূল নেতা আমিনুল হাসান বাপি। এছাড়াও কংগ্রেস নেতৃত্বের দাবী, সুতি, নওদা, বড়ঞা থেকে বহু কর্মী কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। যদিও শাওনীর দাবি আমিনুল হাসান বাপিকে আগেই বহিষ্কার করেছিল দল।

উল্টোদিকে  লালগোলার নসিপুরে নসিপুর অঞ্চল কমিটির দাঁকে হাই মাদ্রাসা মোরে একটি পথ সভায় কংগ্রেস ছেড়ে শতাধিক কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন । উপস্থিত ছিলেন লালগোলা ব্লক তৃণমূলের সভাপতি দেলসাদ আলি,  লালগোলা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মোঃ কামারুজ্জামান ।  যদিও এদিন ওই সভায় যারা তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন তাঁরা কেউই কংগ্রেসের নয় বলে দাবী ব্লক কংগ্রেস সভাপতি যদুরাম ঘোষ  ।

ভরতপুর ২  ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মুস্তাফিজুর রহমান সুমনের হাত ধরে  তৃণমূলে যোগ দেন  ভরতপুর ২  যুব কংগ্রেসের সভাপতি মোহাম্মদ আসিফ মুস্তফা সবুজ । আসিফের দাবী, তার সাথে কংগ্রেস কর্মীরাও তৃণমূলে এসেছেন। তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের দাবী ভগবানগোলা, বড়ঞাতেও যোগদান কর্মসূচী হয়েছে।